মাফলার বীরদের ঝুলিতে আরেক মূল্যায়ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৮:১৫ এএম, ২১ ডিসেম্বর ২০১৭

এবার বিভাগীয় প্রশাসনের সংবর্ধনা পেল রাজশাহীর বাঘা উপজেলার দুই মাফলার বীর সিহাবুর রহমান (৬) ও লিটন আলী (৭)। বৃহস্পতিবার সকালে বাঘা উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে তাদের এ সংবর্ধনা দেয়া হয়।

বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজার সভাপতিত্বে ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নুর-উর রহমান। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফ।

অনুষ্ঠানে বিভাগীয় কমিশনার নুর-উর রহমান বলেন, দেশের সম্পদ রক্ষায় শিশুদের মনে যে উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে তা প্রশংসনীয়। আমরা এই দুই শিশুকে ভালো কাজের স্বীকৃতি দিয়ে সকল শিশুর কাছে বার্তা পৌঁছে দিতে চাই। আমি বিশ্বাস করি এদের মাধ্যমে সুন্দর বাংলাদেশ গড়া সম্ভব।

raj

সভায় জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফ বলেন, আমরা এ রকম শিশু আসা করি যাদের মধ্যে রয়েছে দেশপ্রেম। তিনি দরিদ্র দুই শিশু সিহাব ও লিটনের পড়ালেখার দায়িত্ব নেয়ায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমকে ধন্যবাদ জানান।

ওই অনুষ্ঠানে বাঘার আড়ানী স্টেশনে আন্তঃনগর ট্রেনের স্টপেজ দাবি করেন স্থানীয়রা। সে দাবি যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছে দেয়ার আশ্বাস দেন অতিথিরা।

সাহসী দুই শিশু রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানি ইউনিয়নের ঝিনা গ্রামের বাসিন্দা। তাদের মধ্যে সিহাবুর গ্রামের সুমন আলীর ছেলে ও লিটন শহীদুল ইসলামের ছেলে। সিহাব প্রথম ও লিটন দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র। রেলের জমিতে পরিবারের সঙ্গে তাদের বসবাস।

গত ১৮ ডিসেম্বর সোমবার এ ঘটনা ঘটে। রেললাইন দিয়ে হাঁটার সময় ভাঙা দেখতে পেয়ে দৌড়ে বাড়ি থেকে লাল রঙের মাফলার এনে দুজন দু’দিকে ধরে দাঁড়িয়ে থাকলে ট্রেনের চালক ট্রেনটি থামিয়ে দেন। ছোট্ট দুই শিশুর বুদ্ধিদীপ্ত তাৎক্ষণিক পদক্ষেপে জ্বালানি তেলবাহী ৩২ বগির ট্রেনের বিশাল বহরটি রক্ষা পেয়েছে। না হলে হয়তো অনেক বড় ধরনের দুর্ঘটনাও ঘটতে পারতো।

ফেরদৌস সিদ্দিক/এফএ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :