কেরামত আলী প্রতিমন্ত্রীর শপথ নেয়ায় এলাকায় মিষ্টি বিতরণ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ০২:০১ পিএম, ০২ জানুয়ারি ২০১৮

রাজবাড়ী-১ আসনের এমপি এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী কেরামত আলী মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণের পর এলাকায় মিষ্টি বিতরণ করেছে স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

আওয়ামী লীগ থেকে চার চার বারের নির্বাচিত এমপি কাজী কেরামত আলী প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় জেলাবাসীসহ জেলা আওয়ামী লীগের সকল অঙ্গ ও সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে বইছে আনন্দের বন্যা।

কাজী কেরামত আলী রাজবাড়ী জেলার একমাত্র ও প্রথম প্রতিমন্ত্রী। এর আগে রাজবাড়ীতে কোনো মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রী ছিল না।

এছাড়া রাজবাড়ীবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল একজন মন্ত্রীর। আজ শপথ গ্রহণের মাধ্যমে জেলাবাসীর এ দাবি পূরণ হয়েছে। এ জন্য দলটির নেতাকর্মীরাসহ জেলার সর্বস্তরের জনগণ প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এবং নব্য শপথ নেয়া প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী এমপিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্নভাবে জানিয়েছেন অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।

মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, সাবেক গণ পরিষদ সদস্য ও গোয়ালন্দ মহাকুমা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং রাজবাড়ী পৌরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন কাজী কেরামত আলীর বাবা কাজী হেদায়েত হোসেন। স্বাধীনতা যুদ্ধে ছিল তার উল্লেখযোগ্য অবদান। ১৯৭৫ সালের ১৮ আগষ্ট দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যা করেন। চাচা কাজী কেরামত আলী ৭ ভাই ৪ বোনের মধ্যে সবার বড়। আওয়ামী লীগ থেকে ১৯৯২ সালের উপ-নির্বাচনে রাজবাড়ী ১ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর একে একে চার বার এমপি হন তিনি।

উল্লেখ্য, অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী চৌধুরীর ইন্তেকালের পর ১৯৯২ সালের উপ-নির্বাচনে কাজী কেরামত আলী প্রথমবারের মতো রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর ১৯৯৬ সালে দ্বিতীয়, ২০০১ সালে বিএনপি প্রার্থীর কাছে পরাজিত হলেও ২০০৮ সালে তৃতীয় এবং ২০১৪ চতুর্থবারের মতো নির্বাচিত সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

২০০৮ সালের এমপি নির্বাচিত হবার পর তাকে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সংস্কৃতি বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং ২০১৪ সালের নির্বাচনের পর সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি পদে অধিভুক্ত হন। একই সঙ্গে তিনি দীর্ঘদিন ধরে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দ্বায়িত্ব পালন করে আসছেন।

রুবেলুর রহমান/এমএএস/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :