পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, মামলায় বিএনপির সহস্রাধিক নেতা-কর্মী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০২:৩৬ পিএম, ০২ জানুয়ারি ২০১৮

পাবনায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপি ও ছাত্রদলের সহস্রাধিক নেতা-কর্মীর নামে মামলা করা হয়েছে। পাবনা থানার সাব ইন্সপেক্টর নুরুল আমিন বাদী হয়ে মঙ্গলবার এ মামলা করেন।

মামলায় জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক নুর মাসুম বগা (৪৮), পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিদ্দিকুর রহমানসহ (৪৫) ৫০ জনের নাম উল্লেখ করে এবং আরও অজ্ঞাত সাড়ে ৯০০ নেতা-কর্মীর নামে এ মামলা করা হয়। সংঘর্ষের সময় আটক ২৬ জনকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সদর থানা পুলিশের ওসি আব্দুর রাজ্জাক মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সোমবার দুপুরে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জেলা বিএনপি কার্যালয় থেকে একটি র্যালি বের করার চেষ্টা করে বিএনপি ও ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা।

এ সময় দলীয় কার্যালয়ের সামনেই পুলিশ তাদের র্যালিতে বাধা দেয়। পরে ক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা পুলিশের বাধা উপেক্ষা করে র্যালি করতে গেলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়।

একপর্যায়ে নেতা-কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশও তাদের ওপর লাঠিচার্জ, টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে।

কিছু সময় ধরে চলা সংঘর্ষে পাবনা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী খন্দকার হাবিবুর রহমান তোতা (৫৭), দফতর সম্পাদক জহুরুল ইসলাম (৪৫), কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য হাসান জাফির তুহিন (৪৫), আবুল কাশেমসহ (৪০) অন্তত ২০ নেতা-কর্মী আহত হয়।

এদের মধ্যে কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও এগ্রিকালচার অ্যাসোসিয়েশান অব বাংলাদেশ (অ্যাব) মহাসচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিনকে হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতাল এবং বিএনপি কর্মী আবুল কাশেমকে রাজশাহী মেডিকেল ভর্তি করা হয়।

ওসি আরও জানান, সংঘর্ষের সময় পুলিশ ৪১ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ও ৭ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৬ নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করে।

একে জামান/এএম/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :