অন্ধকার থেকে আলোর পথে তারা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০২:৪৫ পিএম, ১৭ মে ২০১৮ | আপডেট: ০৩:০৪ পিএম, ১৭ মে ২০১৮

ফরিদপুর শহরের পরিবেশকে কলুষমুক্ত রাখতে একযুগের প্রচেষ্টায় প্রায় একশত কিশোরীকে অন্ধকার পথ থেকে সুস্থ্যজীবনে ফিরিয়ে আনতে পেরেছে শাপলা মহিলা সংস্থা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে ‘যৌনপল্লীর শিশুদের সুরক্ষা নিশ্চিতকরন ও পাচার প্রতিরোধে আমাদের করনীয় শীর্ষক’ অ্যাডভোকেসি সভায় এ তথ্য উঠে আসে।

সভায় শাপলা মহিলা সংস্থার কার্যক্রম তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন সংস্থাটির প্রজেক্ট অফিসার প্রশান্ত সাহা। তিনি জানান, শহরের রথখোলা যৌনপল্লী ও সিএন্ডবি ঘাট যৌনপল্লী থেকে উদ্ধার করা ৯৮ জন শিশু কিশোরীকে সুস্থ জীবনে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে ২০ জন সেফ হোমে রয়েছে। বাকিদেরকে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে।

faridpur-pic

তিনি জানান, যৌনপল্লীর ৪৪ জন শিশুকে ইসিসিডি সেন্টারের মাধ্যমে এবং ২৭ জন শিশুকে সরকারি স্কুলে ভর্তি করে লেখাপড়া শেখানো হচ্ছে। এছাড়া ৭০ জন বিভিন্ন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে লেখাপড়া করছে। এদের মধ্যে একজন ইঞ্জিনিয়ারিং, একজন অনার্স ও দুইজন স্নাতক পড়ছে। এ পর্যন্ত ১৮৪ জন যৌনপল্লীর শিশুর জন্মনিবন্ধন নিশ্চিত করা হয়েছে।

শাপলা মহিলা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক চঞ্চলা মন্ডলের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. শামছুল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা, সমাজসেবার উপ-পরিচালক এ এস এম আলী আহসান, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা পরিমল চন্দ্র মন্ডল। এতে অংশ নেন, ব্লাস্টের সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট শিপ্রা গোস্বামী, রাসিনের নির্বাহী পরিচালক আসমা আক্তার মুক্তা, বিএফএফর নির্বাহী পরিচালক আনম ফজলুল হাদী সাব্বির, শহর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি একেএম নাছিরউদ্দিন চৌধুরী, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি শওকত আলী জাহিদ, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মাকসুদা হোসেন, সিনিয়র সাংবাদিক হাসানউজ্জামান প্রমুখ। সভায় সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, এনজিও ব্যক্তিত্ব, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আরএ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :