রোগীর গলায় ১৮০ সেলাই, ডাক্তার বললেন সামান্য আহত

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০৪:২৬ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
ফাইল ছবি

পূর্ববিরোধের জেরে গত ৩১ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘাটুরা এলাকার আক্তার হাজারী, সাজিদ হাজারীসহ কয়েকজন জাবেদ হাজারীকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে জাবেদের ক্ষতস্থানে ১৮০টি সেলাই দেয়া হয়। তবে এ ঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ফাইজুর রহমান যে সনদ দিয়েছেন তাতে জাবেদ হাজারী সামান্য আহত হয়েছেন বলে লেখা হয়েছে।

এ ঘটনায় চিকিৎসক ফাইজুর রহমান অর্থের বিনিময়ে অসৎ উদ্দেশ্যে এ মিথ্যা সনদ দিয়েছেন বলে অভিযোগ তুলে তার অপসারণ চেয়ে মানববন্ধন করেছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

রোববার বেলা ১১টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণে সদর উপজেলার ঘাটুরা এলাকাবাসীর উদ্যোগে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। এতে ঘাটুরা এলাকাবাসী ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিজান আনসারী, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অজিত দাস ও শহর যুবলীগের আহ্বায়ক আমজাদ হোসেন।

বক্তারা বলেন, ঘাটুরা এলাকার বাসিন্দা জাবেদ হাজারীকে প্রতিপক্ষের লোকজন গলাকেটে হত্যার চেষ্টা করে। গলা প্রায় আলাদা হওয়ার মতো অবস্থা হলেও এ ঘটনায় সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ফাইজুর রহমান সনদ দিয়েছেন সামান্য আহত হয়েছেন জাবেদ। ওই চিকিৎসক ৫০ হাজার টাকা নিয়ে অসৎ উদ্দেশ্যে এ মিথ্যা সনদ দিয়েছেন। আমরা অবিলম্বে সদর হাসপাতাল থেকে ফাইজুর রহমানকে অপসারণের দাবি জানাচ্ছি। মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিলও করেন বিক্ষুব্ধরা।

আজিজুল সঞ্চয়/এফএ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :