বাঁশের সঙ্গে ওড়না বাঁধা অবস্থায় পাওয়া গেল সেই শিক্ষিকাকে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি শরীয়তপুর
প্রকাশিত: ০৯:৫৯ পিএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার মূলনা ইউনিয়নের পশ্চিম রায়ের কান্দি গ্রাম থেকে রুবিনা আক্তার (৩৪) নামে এক শিক্ষিকার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বিকেলে একটি বাঁশ বাগান থেকে ওই শিক্ষিকার মরদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে।

উপজেলার বড় মূলনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন রুবিনা। মূলনা ইউনিয়নের পশ্চিম রায়ের কান্দি গ্রামের হাসান মুন্সীর মেয়ে। গত শুক্রবার থেকে নিখোঁজ ছিলেন তিনি। পরিবারের অভিযোগ তাকে হত্যা করে লাশ বাঁশ বাগানে ফেলে রাখা হয়েছে।

জাজিরা থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানা গেছে, এক বছর আগে পাশের পূর্ব রায়ের কান্দি গ্রামের ইতালি প্রবাসি আক্তার মল্লিকের সঙ্গে মুঠোফোনে তার বিয়ে হয়। আগামী জানুয়ারিতে স্বামী দেশে ফিরে তাকে তাদের বাড়িতে নেয়ার কথা ছিল। রুবিনা তার মা রাবেয়া খাতুনের সঙ্গে বসবাস করতেন।

গত শুক্রবার দুপুরে তিনি বিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় কিছু কাগজপত্র ফটোকপি করার জন্য জাজিরা উপজেলা সদরে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন। এরপর আর ফিরে আসেননি। তিনি বাড়ি না ফেরায় শনিবার তার ভাই শামছুল হক মৃধা জাজিরা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

মঙ্গলবার স্থানীয়রা তাদের বাড়ির কাছে একটি বাঁশ বাগানে ওড়না দিয়ে বাঁধা লাশের সন্ধান পেয়ে পুলিশে খবর দেন। পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তর জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

জাজিরা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বেলায়েত হোসেন বলেন, স্কুল শিক্ষিকার লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসাপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। বুধবার সেখানে ময়নাতদন্ত করা হবে। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ বলা যাবে।

ছগির হোসেন/এমএএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :