আপনারা যে বেতন-ভাতা নেন তা জনগণের টাকা : আনু মুহাম্মদ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি যশোর
প্রকাশিত: ১০:০৬ পিএম, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেছেন, বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থায় এখন অতিমাত্রায় বাণিজ্যিকরণ শুরু হয়েছে। দেশের শিক্ষাব্যবস্থা এখন পরীক্ষা ব্যবস্থায় পরিণত হয়েছে। এর মাধ্যমে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ওপর বাড়তি চাপ দেয়া হলেও দক্ষতা বৃদ্ধি, প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো উন্নয়নে পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না।

তিনি বলেন, সুষম শিক্ষার জন্য যে ধরনের সিলেবাস, পাঠ্যসূচি, শিক্ষকের প্রয়োজন তা থেকে বাংলাদেশ এখন অনেক দূরে। তাই এ অবস্থা পরিবর্তনে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অবিভাবকদের সচেতন হতে হবে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যশোর মুজিব সড়ক এলাকার রেলরোডস্থ জয়তী সোসাইটি মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশের বর্তমান শিক্ষা পরিস্থিতি; আপনার ভাবনা’ শীর্ষক এক মুক্ত আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (বাকবিশিস) এ সভার আয়োজন করে।

অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, সৃজনশীল পদ্ধতি, পরীক্ষা ব্যবস্থা, কোচিং বাণিজ্যে এসব ব্যবস্থার মাধ্যমে আমাদের ছেলে-মেয়েদের ওপর নির্মম বোঝা চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে। অথচ দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক সঙ্কট। প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামোগত উন্নয়নের অভাবে শিক্ষকরা তাদের শিক্ষার্থীদের সঠিকভাবে পাঠদান করাতে পারছেন না।

তিনি বলেন, শিক্ষাখাতে উন্নয়নে সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ জিডিপির শতকরা ৬ শতাংশ ব্যয় করার। অথচ সেখানে ব্যয় করা হচ্ছে মাত্র শতকরা ২ শতাংশ। মানে সরকার ইচ্ছা করলে এ খাতে আরও তিনগুণ অর্থ বরাদ্দ দিতে পারে। অথচ তা দেয়া হচ্ছে না। এটি বাস্তবায়ন হলে প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত পুরো শিক্ষা-ব্যাবস্থার চেহারা পাল্টে যাবে।

তিনি শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা যে বেতন-ভাতা ভোগ করেন তা জনগণের টাকায়। এজন্য সরকারের কাছে নয়, জনগণের প্রতি দায়বদ্ধ হয়ে শিক্ষাব্যবস্থার উন্নতিতে যথাযথ দায়িত্ব পালন করতে হবে। পাশাপাশি শিক্ষাব্যবস্থার সকল অসঙ্গতি চিহ্নিত করে সংশোধনের জন্য সরকারের কাছে দাবি বা প্রস্তাব তুলতে হবে।

বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (বাকবিশিস) যশোর জেলা শাখার সভাপতি অধ্যক্ষ পাভেল চৌধুরীর সভাপতিত্বে মুক্ত আলোচনায় অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন- বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (বাকবিশিস) কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আকমল হোসেন, অধ্যাপক তাসদিকুর রহমান, এনজিও কর্মকর্তা হাসিব নেওয়াজ, ট্রেড ইউনিয়ন নেতা মাহবুবুর রহমান মজনু ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক চায়না মজুমদার প্রমুখ।

মিলন রহমান/এএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]