রোহিঙ্গা নারীকে নিয়ে ইমান আলীর কাণ্ড

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নরসিংদী
প্রকাশিত: ০৭:৫৫ পিএম, ২৩ জুন ২০১৯

নরসিংদীতে ভুয়া ঠিকানা ও নকল কাগজপত্র ব্যবহার করে এক রোহিঙ্গা নারী পাসপোর্ট করতে গিয়ে দালালসহ ধরা পড়েছেন। পরে তাদের পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

রোববার বিকেল ৩টার দিকে নরসিংদী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস থেকে তাদের আটক করা হয়। আটকরা হলেন দালাল ইমান আলী ও রোহিঙ্গা নারী ইয়াসমিন আক্তার (২০)।

পাসপোর্ট অফিস সূত্রে জানা যায়, রোববার বিকেলে জরুরি সেবার ভিত্তিতে দালাল ইমান আলী রোগী সাজিয়ে এক রোহিঙ্গা নারীকে পাসপোর্ট করাতে নিয়ে আসেন। তাদের গতিবিধি সন্দেহজনক ছিল। তাই কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করা হয়। যাচাই-বাছাইয়ের পর কাগজপত্র জাল শনাক্ত হয়। পরে তাদের আটক করা হয়। একপর্যায়ে দালাল ইমান আলী স্বীকার করেন ইয়াসমিন আক্তার আসলে অসুস্থ নয়, তিনি রোহিঙ্গা নাগরিক। পাসপোর্ট করাতে এই কৌশল অবলম্বন করেছেন তারা।

Narsingdi-Rogiga1

নরসিংদী পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক সাজাহান কবির বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ওই নারীকে নিয়ে আসা হয়। শাহআলম নামে একজন ওই নারীকে দালাল ইমান আলীর কাছে পাঠান। পরে তারা কাগজপত্র নিয়ে পাসপোর্ট অফিসে আসেন। তাদের গতিবিধি সন্দেহ হলে কাগজপত্র যাচাই করা হয়। সেখানে এনআইডি কার্ড নেই। অন্যান্য যেসব কাগজপত্র যুক্ত করা হয়েছিল, তা বেশির ভাগই জাল। পরে তাদের আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

সঞ্জিত সাহা/এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :