৫০০ বাড়ির অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন, সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ০৭:৩৫ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০২০

গাজীপুরে অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ দেয়ার মূল হোতা সোলাইমান ভূঁইয়া ওরফে সোলাইমান মুন্সীকে ১০ দিনের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) গাজীপুর মহানগরীর চান্দরা গাছা ও বোর্ডবাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাবিবা ফারজানা এ কারাদণ্ড দেন।

এছাড়া ওইসব এলাকার অনন্যা রহমানকে ২০ হাজার টাকা, হোসনে আরাকে এক লাখ, রাবেয়া আক্তারকে ৭০ হাজার, আয়নাল মিয়াকে ১০ হাজার, নূরজাহানকে ৫০ হাজার এবং হাসান স্টাইল অ্যান্ড ডিজাইন লিমিটেডের মালিক এ কে আজাদকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করে তাৎক্ষণিকভাবে তা আদায় করা হয়।

তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড গাজীপুর আঞ্চলিক অফিসের ব্যবস্থাপক সুরুজ আলম জানান, অবৈধ গ্যাসলাইন বিচ্ছিন্নকরণের অংশ হিসেবে ওই এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন গাজীপুর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাবিবা ফারজানা। অভিযানকালে ওই এলাকায় তিনটি স্পটে তৃতীয় বারের মতো অবৈধভাবে স্থাপিত দুই ইঞ্চি ব্যাসের আড়াই কিলোমিটার পাইপলাইনের সংযোগস্থলসহ ৩০০ মিটার পাইপলাইন অপসারণ করে গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এতে প্রায় ৫০০টি বাড়ির আনুমানিক ১ হাজার ৫০০ অবৈধ চুলার গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

jagonews24

এছাড়া অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেয়ার মূল হোতা সোলাইমান ভূঁইয়া ওরফে সোলাইমান মুন্সীকে ১০ দিনের কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় অবৈধভাবে গ্যাস ব্যবহারের অভিযোগে ছয়জন গ্রাহককে সাড়ে চার লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযান পরিচালনাকালে প্রকৌশলী এস এম. আবু সুফিয়ান, মির্জা শাহনেওয়াজ লতিফ, মো. সাবিনুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আমিনুল ইসলাম/আরএআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]