ইটের নিচে লুকিয়ে কাঠ পাচার!

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কক্সবাজার
প্রকাশিত: ১০:৩২ এএম, ৩০ নভেম্বর ২০২০

ইটের নিচে কাঠ বিছিয়ে লুকিয়ে পাচারকালে বিপুল পরিমাণ চোরাই কাঠ জব্দ করেছে কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগ।

কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের রামু বাইপাস এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব কাঠ জব্দ করা হয়। এ সময় কাঠ পাচারে ব্যবহৃত একটি ট্রাকও জব্দ করা হয়েছে।

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিশেষ টহল টিমের সদস্যরা রোববার (২৯ নভেম্বর) দিনগত মধ্যরাতে এ অভিযান চালান বলে জানান উত্তর বনবিভাগের বিশেষ টিমের ইনচার্জ একেএম আতা এলাহী। তবে এ সময় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

বন কর্মকর্তা আতা এলাহী জানান, শীতের আবহ শুরুর পর থেকে বিভিন্ন এলাকা থেকে মূল্যবান কাঠের গুঁড়ি ও চেরাই তক্তা পাচারের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে গাছ চোর সিন্ডিকেট। ইতোমধ্যে অভিযান চালিয়ে বেশ কিছু চেরাই কাঠ জব্দ করা হয়েছে।

সড়কে বনবিভাগের নজরদারি বাড়ায় পাচারের কৌশল পাল্টাচ্ছে কাঠচোর সিন্ডিকেট। ইট পরিবহনের বেশ ধরে রোববার রাতেও বেশ কিছু চেরাই কাঠ পাচারের খবর পেয়ে অভিযানে নামে বিশেষ টহল দল।

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) তহিদুল ইসলামের নির্দেশনায় কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের রামু বাইপাস এলাকায় অভিযান চালিয়ে উপরে ইট ও নিচে কাঠভর্তি একটি ট্রাক (চট্ট মেট্রো-ড ১১ -২৩২১) জব্দ করা হয়। অভিযান টিমের উপস্থিতি টের পেয়ে চালক ও পাচারকারীরা গাড়িটি রাস্তার পাশে দাঁড় করিয়ে পালিয়ে যান।

জব্দ গাড়িতে প্রায় ২৫০ ঘনফুট অবৈধ বিবিধ চেরাই কাঠ মিলেছে। যার আনুমানিক মূল্য কয়েক লাখ টাকা। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। চলতি মাসের শুরু থেকে এ পর্যন্ত কাঠভর্তি ডজনাধিক পিকআপ জব্দ করা হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) তহিদুল ইসলাম বলেন, বন খেকোরা নানা ফন্দিতে কাঠ পাচার করছে। এবার উপরে ইট রেখে পাচারের চেষ্টা করায় বিপুল পরিমাণ চেরাই কাঠ জব্দ করা হয়েছে। সারাদিন কাজ করার পরও রাতের আঁধারে কাঠ পাচার রোধে মাঠে রয়েছে বনকর্মীরা। প্রকৃতি রক্ষায় সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

সায়ীদ আলমগীর/এফএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]