বেনাপোলে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে মাদরাসা শিক্ষক আটক

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বেনাপোল (যশোর)
প্রকাশিত: ০৫:১৩ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২১
ফাইল ছবি

যশোরের বেনাপোলে পাঁচ বছরের শিশু ধর্ষণের অভিযোগে হাফেজ সালমান (৩৮) নামের এক মাদরাসা শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার (২৪ জানুয়ারি) বেনাপোলের ভবেরবেড় দারুস সুন্না কওমি মাদরাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বেনাপোল পোর্ট থানার ভবেরবেড় গ্রামের ওই শিশু রোববার সকালে মাদরাসায় পড়তে যায়। সেখানে মাদরাসা শিক্ষক হাফেজ সালমান তাকে ধর্ষণ করেন। পরে শিশুটির অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ শুরু হলে তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় শিশুর বাবা থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ রাতে ওই মাদরাসার চার শিক্ষককে আটক করে। পরে তাদের মধ্য থেকে হাফেজ সালমানকে রেখে বাকিদের ছেড়ে দেন।

বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) আজিজুল হক ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে এক শিক্ষককে আটক করা হয়েছে। শিশুটি সুস্থ্য হলে ধর্ষণকারীকে শনাক্ত করা সম্ভব হবে।

এদিকে শনিবার (২৩ জানুয়ারি) শার্শার রামপুর গ্রামে ছয় বছরের আরেক শিশু ধর্ষণের অভিযোগে ওঠে। এ ঘটনায় সাগর হোসেন (১৫) নামে এক কিশোরকে আটক করে পুলিশ। তিনি ওই গ্রামের শাহাজান আলীর ছেলে।

উলাশী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য কবির হোসেন জানান, ওই দিন শিশুটিকে ফুসলিয়ে পাশের একটি নির্মাণাধীন বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করে সাগর হোসেন। বিষয়টি জানার পর তাৎক্ষণিকভাবে ওই শিশুর বাবাকে মামলা দায়েরের জন্য পরামর্শ দেয়া হয়।

শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আলম মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মো. জামাল হোসেন/ আরএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]