হাইওয়ে থানার নির্মাণাধীন ভবনে ফাটল, মাটি দিয়ে লাগানো হচ্ছে টাইলস

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ)
প্রকাশিত: ০৫:০১ পিএম, ০৮ এপ্রিল ২০২১

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে হাইওয়ে পুলিশের জন্য নির্মাণাধীন আধুনিক থানা ভবনের কাজ প্রায় শেষ হওয়ার পথে। এরইমধ্যে ভবন নির্মাণে নিম্নমানের রড ও ইট ব্যবহারসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, ২০১৮ সালের ১১ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স মোস্তফা কামাল নিয়াজ পার্ক ৪ কোটি ৪৬ লাখ ৪৫ হাজার ১২৫ টাকা ব্যয়ে তিনতলা ভবন নির্মাণে চুক্তিবদ্ধ হয়। নতুন থানা নির্মাণে বাস্তবায়নকারী সংস্থা হিসেবে দায়িত্ব পায় বাংলাদেশ পুলিশ ও গণপূর্ত অধিদফতর।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পুরো ভবনের অনেক জায়গায় ও পিলারে ধরেছে ফাটল। নিচে টাইলস লাগানো হচ্ছে বালু আর মাটি দিয়ে।

টাইলস মিস্ত্রী রায়হান বলেন, ‘ঠিকাদারের কথা মতো কাজ করতেছি। ঠিকাদার যেভাবে বলবে আমাদের তো সেভাবেই কাজ করতে হবে।’

এ বিষয়ে ঠিকাদারের ম্যানেজার সামছুল করিম বলেন, ‘টাইলস লাগানোর জন্য সিমেন্ট ও বালু রাখা আছে। মিস্ত্রি কেন মাটি দিয়ে করছে তা বোধগম্য নয়। সব উঠিয়ে নতুন করে বসানো হবে।’

jagonews24

আর ফাটলের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘রোদ আর বৃষ্টির কারণে ভবনে ফাটল দেখা দিয়েছে। ভবন বুজিয়ে দেয়ার সময় সব ঠিকঠাক করে দেয়া হবে।’

এ ব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইনুল ইসলাম বলেন, ‘ভবনের নির্মাণ কাজ পরিদর্শনে এসে দেখি টাইলস বসানো হচ্ছে বালু আর মাটি দিয়ে। সঙ্গে সঙ্গে কাজ বন্ধ করে বিষয়টি আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। এ বিষয়ে তারাই সিদ্ধান্ত নেবে।’

সিলেট রেঞ্জের হাইওয়ে পুলিশের এএসপি শহিদউল্লাহ বলেন, ‘নির্মাণাধীন থানা ভবনের কাজে অনিয়মের বিষয়টি সদর দফতরে জানানো হয়েছে। ঠিকাদার বলেছে সব ঠিকঠাক করে দেবে। যেহেতু ভবন এখনো আমরা বুজে নিইনি তাই ভবন বুজে নেয়ার আগে সব ঠিক আছে কিনা দেখে শুনেই নেব। ত্রুটিপূর্ণ ভবন আমরা বুজে নেব না।’

এ ব্যাপারে জানতে হবিগঞ্জ গণপূর্ত অধিদফতরের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ও হাইওয়ে থানার নির্মাণাধীন ভবনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (এসও) মাহবুবুল আলম শামীমের মোবাইল ফোনে কল দিলে তিনি অসুস্থ বলে কল কেটে দেন।

কামরুজ্জামান আল রিয়াদ/এসজে/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]