আপত্তিকর অবস্থায় ধরা, বিয়ে করে পার পেলেন কৃষকলীগ নেতা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নাটোর
প্রকাশিত: ১০:৩৩ এএম, ০২ মে ২০২১

নাটোরের গুরুদাসপুরে গভীর রাতে এক নারীর বাড়িতে আপত্তিকর অবস্থায় জনতার হাতে ধরা পড়েন বিয়াঘাট ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি মো. আলম হোসেন (মেকার)। পরে রাতেই কাজী অফিসে নিয়ে গিয়ে তাদের বিয়ে পড়িয়ে দেন এলাকাবাসী।

এদিকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক হওয়া আলমকে ধরতে গেলে স্থানীয় এক ছাত্রলীগ কর্মীকে কামড় দিয়ে গুরুতর আহত করেন তিনি। শুক্রবার গীভর রাতে বিয়াঘাট এলাকার সুজার মোড় নামক স্থানে এসব ঘটনা ঘটে।

আহত ছাত্রলীগ কর্মী নয়ন জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ একই এলাকার ওই মেয়ের সাথে আলম দৈহিক সম্পর্ক করে আসছিলেন। মেয়েটি অসহায় হওয়ায় তার সুযোগে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে তাকে ব্যবহার করছিলেন। তাই সাধারণ জনতা মিলে তাদের দুজনকে রাতেই বিয়ে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিয়ের দেনমোহর ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

কৃষকলীগ নেতা আলম মেকার মুঠোফনে বলেন, এ সংক্রান্ত বিষয়ে তার কোনো মন্তব্য নেই।

রেজাউল করিম রেজা/এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]