গাইবান্ধায় শুভ হত্যার সব আসামি খালাস

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাইবান্ধা
প্রকাশিত: ০৩:২৭ পিএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে শিশু সাকিবুল ইসলাম ওরফে শুভ (৫) হত্যা মামলার ১০ আসামির সবাইকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে গাইবান্ধা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ বিচারক কেএম শহীদ আহমেদ এ রায় দেন।

খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বালাপাড়া গ্রামের আবদুল রাজ্জাক, একই উপজেলার চাচিয়া মীরগঞ্জ গ্রামের কবির মিয়া, হারুন মিয়া, সুমন মিয়া, রবিনহুড, নিজাম খাঁ গ্রামের মোস্তাফিজার রহমান, জুয়েল চন্দ্র, মীরগঞ্জ এলাকার রিপন কুমার সাহা, বালাপাড়া গ্রামের মিল্টন মিয়া ও একই গ্রামের লাভলু মিয়া।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ৮ সেপ্টেম্বর গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ পৌরসভার মীরগঞ্জ বালাপাড়ার আশেক আলী মাস্টারের শিশুপুত্র সাকিবুল ইসলাম ওরফে শুভকে বাড়ির উঠান থেকে অপহরণ করে দুর্বৃত্তরা। এরপর অপহরণকারীরা মোবাইল ফোনে ১৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে শুভর বাবার কাছে। মুক্তিপণ না পেয়ে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।

ঘটনার দুইদিন পর অপহরণকারী চক্রের ৯জনকে আটক করে পুলিশ। পরে তাদের দেওয়া তথ্যে ১০ সেপ্টেম্বর রাত আটটার দিকে মীরগঞ্জ গুচ্ছ গ্রামের পাশে ঈদগাঁ মাঠের দক্ষিণে একটি নালা থেকে শুভর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় শিশুর বাবা আশেক আলী মাস্টার বাদী হয়ে ১১ সেপ্টেম্বর রাতে তার ভাই আবদুর রাজ্জাকসহ ১০ জনকে আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সুন্দরগঞ্জ থানার তৎকালীন ওসি (তদন্ত) জিন্নাত আলী ওই বছরের ডিসেম্বরে ১০ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

এদিকে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শাহিন গুলসান নাহার মুনমুন রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, এ রায়ে বাদীপক্ষ ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছে।

অন্যদিকে আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবু আলা মো. সিদ্দিকুর ইসলাম
রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, আমার মক্কেলরা ন্যায় বিচার পেয়েছেন।

জাহিদ খন্দকার/আরএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]