ত্বকী হত্যা

শামীম ওসমান ও তার ছেলে অয়নকে গ্রেফতারের দাবি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৯:৫৯ পিএম, ০৮ আগস্ট ২০২২

ত্বকী হত্যার নির্দেশদাতা উল্লেখ করে নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, তার ছেলে অয়ন ওসমান ও ভাতিজা আজমেরী ওসমানসহ তদন্তে নাম আসা ঘাতকদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন নিহত ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বী।

তিনি বলেন, এই ওসমান পরিবার বরাবরই এখানে লাশের রাজনীতি করেছে। কিন্তু এ লাশের রাজনীতি আর হবে না। ১৬৪ ধারায় আজমেরী ওসমানের জবানবন্দি নেওয়ারও দাবি জানান তিনি।

তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যা ও বিচারহীনতার ১১৩ মাস উপলক্ষে সোমবার (৮ আগস্ট) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে আলোক প্রজ্বালন কর্মসূচিতে এ দাবি জানান রফিউর রাব্বী। আলী আহাম্মদ চুনকা নগর মিলনায়তন প্রাঙ্গণে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

jagonews24

নিহত ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বি বলেন, ‘শামীম ওসমান বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন কথা বলছেন। ২০১৬ সালে শামীম ওসমান প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অভিযোগ ও চিঠি দিয়েছিলেন। তখন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে র‌্যাব পাঠালে তখন র‌্যাবের দায়িত্বপ্রাপ্তরা শামীম ওসমানকে বলেছিলেন, বেশি বাড়াবাড়ি করবেন না। আপনার ছেলের নাম এখনো যুক্ত করি নাই। তাদের বলার পর তিনি এতদিন চুপ ছিলেন। এখন আবার সরব হলেন। শামীম ওসমান মনে করছেন দেশের মানুষ অনেক বোকা।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নীরবতার সুযোগে ঘাতকচক্র নতুন করে চক্রান্তে নেমেছে, মিথ্যাচারে নেমেছে। র‌্যাবের যে কর্মকর্তা সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন ওসমান পরিবারের নেতৃত্বে ত্বকী হত্যায় ১১ জন জড়িত, সেই র‌্যাব কর্মকর্তা জিয়াউল হাসান কর্নেল থেকে ব্রিগেডিয়ার, এখন মেজর জেনারেল হয়েছেন। তিনি যদি মিথ্যাচার করতেন তাহলে কেন তার পদোন্নতি হচ্ছে। দেশে বিচারব্যবস্থা স্বাধীন থাকলে সাড়ে ৯ বছর ধরে ত্বকী হত্যার বিচার বন্ধ থাকে না।’

jagonews24

নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সভাপতি ভবানী শংকর রায়ের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন মাহমুদের সঞ্চালনায় এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের সদস্য সচিব কবি ও সাংবাদিক হালিম আজাদ, খেলাঘর জেলা সভাপতি রথীন চক্রবর্তী, সিপিবি জেলা সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, বাসদের জেলা আহ্বায়ক নিখিল দাস, ন্যাপের জেলা সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন প্রমুখ।

২০১৩ সালের ৬ মার্চ নগরীর শায়েস্তা খাঁ রোডের বাসা থেকে বের হওয়ার পর নিখোঁজ হয় মেধাবী ছাত্র তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী। দুদিন পর ৮ মার্চ শীতলক্ষ্যা নদীর কুমুদিনী শাখা খাল থেকে ত্বকীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর থেকে ত্বকী হত্যার বিচার শুরু ও চিহ্নিত আসামিদের গ্রেফতারের দাবিতে প্রতি মাসের ৮ তারিখ আলোক প্রজ্বালন কর্মসূচি পালন করে আসছে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোট।

মোবাশ্বির শ্রাবণ/এসআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।