কলেজছাত্রীর নগ্ন ভিডিও পেয়ে চাঁদা দাবি, কারাগারে প্রেমিকসহ ৩

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৩:৫০ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২২

নোয়াখালী সদরে প্রেমের ফাঁদে কলেজছাত্রীর (১৮) নগ্ন ভিডিও করে চাঁদা দাবির ঘটনায় প্রেমিকসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার (২৭ নভেম্বর) সন্ধ্যায় মাইজদী পাবলিক কলেজের মাঠ থেকে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় তাদের আটক করা হয়। পরে তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন সুবর্ণচর উপজেলার জাহাজমারা ইউনিয়নের চরজব্বর গ্রামের মো. ইউনুছের ছেলে তানভীর আহমেদ শুভ (২২), একই এলাকার হাজি সাইফুল ইসলামের ছেলে জুলফিকার ইসলাম নাঈম (২০) ও সদর উপজেলার কালাদরাপ ইউনিয়নের উত্তর শুল্লকিয়া গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে আরিফুল ইসলাম সৈকত (১৯)।

পুলিশ জানায়, ওই ছাত্রী একই কলেজে পড়ার সুবাদে শুভর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিভিন্ন প্রলোভনে পড়ে ওই ছাত্রী মোবাইলে তোলা নগ্ন ভিডিও তার প্রেমিক শুভকে পাঠান। পরে শুভ এ ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। না পেয়ে শুভ যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়ে ভিডিওগুলো তার বন্ধু নাঈম ও সৈকতসহ অনেকের কাছে পাঠিয়ে দেন।

বিষয়টি জানতে পেরে ওই ছাত্রী রোববার বিকেলে পাবলিক কলেজ মাঠে গিয়ে আসামিদের পান। কথা-কাটাকাটি একপর্যায়ে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় তাদের আটক করে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। এ সময় শুভর কাছ থেকে নগ্ন ভিডিওসহ একটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার শহীদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জাগো নিউজকে বলেন, ভিকটিমের বাবার করা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আসামিদের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা করা হয়েছে।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, সোমবার (২৮ নভেম্বর) আদালতের মাধ্যমে আসামিদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ইকবাল হোসেন মজনু/এসআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।