প্রায় ফাঁকা টাঙ্গাইল-ঢাকা মহাসড়ক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ০২:১৩ পিএম, ১০ ডিসেম্বর ২০২২
বঙ্গবন্ধু সেতু থেকে ঢাকা লেনে কম সংখ্যক যানবাহন চলছে

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে উত্তর-দক্ষিণবঙ্গসহ ২৩ জেলার যানবাহনের চাপ নিত্যদিনের চিত্র। তবে শনিবার (১০ ডিসেম্বর) সকাল থেকে পুরোটাই বিপরীত। কমেছে যান চলাচল। দেশের ব্যস্ততম এ মহাসড়ক এখন অনেকটা ফাঁকা।

মহাসড়কের উত্তরবঙ্গ লেনে যান চলাচল করলেও ঢাকামুখী লেনে সামান্য দূরপাল্লার বাস ও ট্রাক চলাচল করতে দেখা গেছে।

ঢাকায় বিএনপির গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে নেতাকর্মীদের যাতায়াত বন্ধের পরিকল্পনায় এ পরিস্থিতি সৃষ্টি বলে জানিয়েছেন পরিবহন সংশ্লিষ্টসহ স্থানীয় ব্যবসায়ী ও যাত্রীরা।

প্রায় ফাঁকা টাঙ্গাইল-ঢাকা মহাসড়ক

অন্যদিকে টাঙ্গাইলে পরিবহন নেতারা জানিয়েছেন, ঢাকায় বিএনপির মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে শনিবার টাঙ্গাইল থেকে কোনো গণপরিবহন ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এ কারণে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক প্রায় গণপরিবহন শূন্য হয়ে পড়েছে।

বঙ্গবন্ধু সেতু টোলপ্লাজা সূত্র জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে গণপরিবহনসহ ছোট বড় মিলিয়ে ১৬ হাজার ৬১৬টি পরিবহন সেতু পারাপার হয়েছে। এতে ঢাকাগামী পরিবহনের সংখ্যার থেকে উত্তরবঙ্গগামী পরিবহনের সংখ্যা বেশি ছিল। এ সময়ে সেতুর পূর্ব টোলপ্লাজা অতিক্রম করেছে ৯ হাজার ১৩৯টি। এতে টোল আদায় হয়েছে ৮৬ লাখ ১ হাজার ৭০০ টাকা। এছাড়া সেতুর পশ্চিম টোল প্লাজা অতিক্রম করেছে ৭ হাজার ৪৭৭ টি পরিবহন। এতে টোল আদায় হয়েছে ৭১ লাখ ২১ হাজার ৮০০টাকা।

পারাপার হওয়া যানবাহনের মধ্যে ২ হাজার ৪১২টি গণপরিবহন সেতু পারাপার হয়েছে। এরমধ্যে ঢাকাগামী ১ হাজার ১৯২টি যাত্রীবাহী বাস সেতু পার হয়েছে। স্বাভাবিক সময়ে ১২-১৩ হাজার পরিবহন সেতু পারাপার হয়ে থাকে বলে দাবি সেতু কর্তৃপক্ষের।

প্রায় ফাঁকা টাঙ্গাইল-ঢাকা মহাসড়ক

টাঙ্গাইল বাস-কোচ-মিনিবাস মালিক সমিতির মহাসচিব গোলাম কিবরিয়া বড় মনি জাগো নিউজকে বলেন, সব মালিককে বাস চলাচল স্বাভাবিক রাখতে বলা হয়েছে। এরপরও যদি তারা সড়কে বাস না নামায় আমাদের কিছু করার নেই।

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু সেতু সাইট কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবির বাপ্পি জাগো নিউজকে বলেন, স্বাভাবিকের তুলনায় সেতু দিয়ে কম সংখ্যক পরিবহন পারাপার হয়েছে। স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে যাত্রীবাহী পরিবহনের সংখ্যা কম ছিল।

আরিফ উর রহমান টগর/এসজে/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।