বসুন্ধরায় বিপ্রপার্টির নতুন মার্কেটপ্লেস

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২০ পিএম, ২৪ অক্টোবর ২০২১

প্রপার্টির চাহিদা মেটাতে রাজধানীর বসুন্ধরায় বিপ্রপার্টি এনেছে নতুন মার্কেটপ্লেস। এটি বিপ্রপার্টির ৮ম মার্কেটপ্লেস। অন্য মার্কেটপ্লেসগুলো রাজধানীর মিরপুর, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর, বনানী, রামপুরা এবং উত্তরায় দুটি অবস্থিত।

রোববার (২৪ অক্টোবর) বসুন্ধরার অফিসে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ তথ্য জানানো হয়।

এসময় জানানো হয়, ২০২১ সালের প্রথম তিন প্রান্তিকে বিপ্রপার্টির ওয়েবসাইটে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক প্রপার্টির লিস্টিং যোগ করা হয়েছে। ঢাকা থেকে ৭০ হাজারেরও বেশি লিস্টিং যোগ হয়েছে এ তালিকায়, যার মধ্যে প্রপার্টি বিক্রির জন্য ৭ দশমিক ৫ শতাংশ লিস্টিং এসেছে কেবল বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা থেকে। একইভাবে এ বছর ঢাকা থেকে ভাড়ার জন্য যতো প্রপার্টি যোগ করা হয়েছে তার প্রায় ৩ শতাংশ এসেছে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা থেকে। এছাড়া ২০২০ সালের প্রথম তিন প্রান্তিকের তুলনায় বসুন্ধরায় প্রপার্টি ক্রয়ের চাহিদা বেড়েছে ২৪৩ শতাংশ এবং প্রপার্টি ভাড়ার চাহিদা বেড়েছে ৭৪ শতাংশ।

২০২১ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চাহিদা অনুযায়ী প্ল্যাটফর্মে প্রপার্টি সরবরাহের অনুপাত ছিল ৩১ শতাংশ। প্রপার্টির এই ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে দেশের একমাত্র কমপ্লিট রিয়েল এস্টেট সলিউশন প্রোভাইডার কোম্পানি বিপ্রপার্টি সম্প্রতি বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় একটি মার্কেটপ্লেস খুলেছে। ঢাকা শহরে অবস্থিত বিপ্রপার্টির মার্কেটপ্লেসের তালিকায় ৮ম মার্কেটপ্লেস হিসেবে সম্প্রতি যুক্ত হলো বসুন্ধরা মার্কেটপ্লেস। বসুন্ধরা এবং এর আশপাশ এলাকায় বসবাসরতদের জন্য রিয়েল এস্টেটে বিনিয়োগ আরও সহজ ও নিশ্চিন্তে করতে বিপ্রপার্টির নতুন এ উদ্যোগ।

এ প্রসঙ্গে বিপ্রপার্টির মার্কেটিং ও পিআর বিভাগের প্রধান মাহজাবীন চৌধুরী বলেন, প্রপার্টি ক্রয় বা ভাড়া নেওয়ার ক্ষেত্রে মানুষ বরাবরই নিরাপত্তা, নিত্যদিনের সব মৌলিক চাহিদার সহজলভ্যতা এবং সামর্থ্যের কথা সবার আগে বিবেচনা করে। এসব বৈশিষ্ট্য পুরোপুরি মিলে যায় বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ক্ষেত্রে। তাই এ এলাকাটি ডেভেলপার, ক্রেতা এবং ভাড়াটিয়াদের জন্য বেশ আকর্ষণীয় একটি স্থানে পরিণত হয়েছে। বসুন্ধরায় প্রপার্টির এই চাহিদা আগামী বছরগুলোতে আরও বাড়বে বলেই আমরা আশা করছি , আর এ লক্ষ্যেই বসুন্ধরায় আমরা এ নতুন মার্কেটপ্লেসটি খুলেছি।

বিপ্রপার্টিতে তালিকাভুক্ত আছে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার চমৎকার সব অ্যাপার্টমেন্ট, ডুপ্লেক্স বাড়ি, প্লট এমনকি সম্পূর্ণ ভবনও।

বিপ্রপার্টির দেওয়া তথ্য অনুসারে, ২০২১ সালের প্রথম তিন প্রান্তিকে প্ল্যাটফর্মটিতে ৩৭ শতাংশ বাড়ি সন্ধানকারী এক হাজার ১ বর্গফুট থেকে এক হাজার ৫০০ বর্গফুটের মধ্যে থাকা অ্যাপার্টমেন্টগুলো খুঁজেছেন। এছাড়া ১৯ শতাংশ বাড়ি সন্ধানকারী এক হাজার বর্গফুটের মধ্যে অ্যাপার্টমেন্ট পছন্দ করেছিলেন, সেখানে প্রায় ১৬ শতাংশ বাড়ি সন্ধানকারী এক হাজার ৫০১ থেকে দুই হাজার বর্গফুটের মধ্যে অ্যাপার্টমেন্ট পছন্দ করেন। বেডরুম পছন্দের তালিকা অনুসারে, প্রায় ৬০ শতাংশ মানুষ তিন বেডরুমের অ্যাপার্টমেন্ট খুঁজছিলেন।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার প্রায় ৩৬ শতাংশ বাড়ি সন্ধানকারী নির্দিষ্ট বাজেটে ৫০ লাখ থেকে এক কোটি টাকার মধ্যে অ্যাপার্টমেন্ট খুঁজছিলেন। ২৫ শতাংশ সন্ধানকারী এক থেকে তিন কোটির মধ্যে অ্যাপার্টমেন্ট খুঁজছিলেন। বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে বিপ্রপার্টিতে গ্রাহকদের করা সব প্রপার্টি সংক্রান্ত জিজ্ঞাসার মধ্যে প্রায় ৮ শতাংশ ছিল বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা ঘিরে, যা এ এলাকার প্রপার্টির উচ্চ চাহিদারই প্রমাণ দেয়।

মতবিনিময়কালে জানানো হয়, রাজধানীর পরবর্তী বাণিজ্যিক কেন্দ্র হিসেবে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা ক্রমাগত উন্নতি করছে। এ লক্ষ্যেই কোম্পানির ওয়েবসাইটের কমার্শিয়াল সেকশনে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে ক্রয়, বিক্রয় ও ভাড়ার জন্য অফিস স্পেস এবং দোকানের বিশাল তালিকা।

বিপ্রপার্টি বসুন্ধরা মার্কেটপ্লেসে গ্রাহকরা যে ধরনের সেবা পাচ্ছেন তার মধ্যে রয়েছে- আবাসিক ও বাণিজ্যিক প্রপার্টি ক্রয়, বিক্রয় এবং ভাড়া দেওয়ার সুবিধা। সেই সঙ্গে রয়েছে প্রপার্টি সংক্রান্ত আর্থিক পরামর্শ এবং আইনি সুবিধা পাওয়ার ব্যবস্থাও থাকছে। এছাড়া বিপ্রপার্টি সম্প্রতি ইন্টেরিয়র ডিজাইন সলিউশনও চালু করেছে।

বসুন্ধরা মার্কেটপ্লেসটি সপ্তাহে সাতদিন সকাল সাড়ে ৯টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত খোলা থাকে। মার্কেটপ্লেসের অবস্থান বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার বি ব্লকের ২নং রোডের ২৬ নম্বর বাড়ির ৫ম তলায়।

এইচএস/কেএসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]