কুষ্টিয়া ও নেত্রকোনার ৪৯৭ জনকে প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:০৮ পিএম, ১১ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৮:১৮ পিএম, ১১ জানুয়ারি ২০১৮
ফাইল ছবি

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক পদে (চলতি দায়িত্ব) দুই জেলায় ৪৯৭ জন সহকারী শিক্ষককে পদোন্নতি দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

আদেশে বলা হয়েছে, কুষ্টিয়া ও নেত্রকোনা জেলায় ৪৯৭ জন শিক্ষককে চলতি দায়িত্বে প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি দেয়া হয়েছে। পদোন্নতিপ্রাপ্ত শিক্ষকদের আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে নতুন কর্মস্থলে যোগদানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. এ এফ এম মনজুর কাদির জাগো নিউজকে বলেন, জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে কুষ্টিয়া ও নেত্রকোনা জেলার তালিকভুক্ত শিক্ষকদের পদোন্নতি দেয়া হচ্ছে। আজ বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়েছে। এ দুই জেলার ৪৯৭ জন জ্যেষ্ঠ সহকারী শিক্ষককে চলতি দায়িত্বে প্রধান শিক্ষক পদে দায়িত্ব দেয়া হবে। অন্যান্য জেলা থেকে শিক্ষকদের গ্রেডেশনের তালিকা পেলে সেখানেও প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদে সহকারী শিক্ষকদের চলতি দায়িত্বে বসানো হবে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে ফরিদপুর, ভোলা, মেহেরপুর ও ঢাকা জেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ সহকারী শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষকের চলতি দায়িত্বে পদোন্নতি দেয়া হয়। এছাড়াও মেহেরপুর, ফরিদপুর ও ঠাকুরগাঁও জেলার শিক্ষকদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে তাদেরকেও এ দায়িত্ব দেয়া হবে।

জানা যায়, জ্যেষ্ঠ শিক্ষকদের তালিকা প্রণয়নে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরকে দায়িত্ব দেয়া হয়। সে তালিকার ভিত্তিতে মন্ত্রণালয় থেকে যোগ্য শিক্ষকদের পদায়নে অনুমোদন দেয়। অধিদফতর সেসব শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষক পদে পদায়ন করে থাকে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মো. রমজান আলী জাগো নিউজকে বলেন, মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সারা দেশের জ্যেষ্ঠ সহকারী শিক্ষকদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন এলে শিক্ষকদের পদায়ন দেয়া হচ্ছে। সকল জেলার প্রধাণ শিক্ষক শূন্য ও শিক্ষকদের তালিকা দিতে জেলা শিক্ষা অফিসারদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এরপর আমরা জেলাভিত্তিক জ্যেষ্ঠ শিক্ষকদের তালিকা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দিচ্ছি।

উল্লেখ্য, গত ২৩ মে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোস্তফিজুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের শূন্য স্থানে জ্যেষ্ঠ সহকারী শিক্ষকদের দায়িত্ব দেয়ার ঘোষণা দেন।

এমএইচএম/এসএইচএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :