শিক্ষকদের বৈশাখী ভাতা-ইনক্রিমেন্টের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৩৭ পিএম, ০৮ নভেম্বর ২০১৮
এই দাবিতে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছিলেন

>> ২০ শতাংশ বৈশাখী ভাতা
>> ইনক্রিমেন্ট ৫ শতাংশ
>> কবে থেকে দেয়া হবে, সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ের

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের ২০ শতাংশ বৈশাখী ভাতা এবং ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট দিতে ৭০৯ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী এ ঘোষণা দেন।

এ সময় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব সোহরাব হোসাইন, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের মহাসচিব শাজাহান আলম সাজু, কল্যাণ ট্রাস্টের মহাসচিব অধ্যক্ষ ফরিদ সাদিসহ শিক্ষক নেতৃবন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বিষয়টি নিশ্চত করে বৃহস্পতিবার রাতে শাজাহান আলম সাজু জাগো নিউজকে বলেন, এমপিওভুুক্ত শিক্ষকদের বাৎসরিক ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট ও বৈশাখী ভাতা দেয়া আমাদের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল, যা বাস্তবায়নের ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। বেসরকারি শিক্ষকদের ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্টের জন্য ৫৩১ কোটি ৮২ লাখ ৫৫৬ টাকা এবং বেতনের ২০ শতাংশ বৈশাখী বাবদ ১৭৭ কোটি ২৭ লাখ ৬০ হাজার টাকা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। সরকারের অর্থ বিভাগ ও প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে এই অর্থ দেয়া হবে। তবে কবে থেকে দেয়া হবে, সেই সিদ্ধান্ত শিক্ষা মন্ত্রণালয় নেবে বলে জানানো হয়েছে।

তিনি বলেন, শিক্ষকদের অবসরে কল্যাণ ও অবসররের আর্থিক সংকট নিরসনে নতুন করে অবসর বোর্ডে ৫৪২ কোটি টাকা ও কল্যাণ বোর্ডের জন্য ২৩৫ কোটি টাকা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী শিক্ষকদের দাবি মেনে নেয়ায় গণভবনের সামনে তাৎক্ষণিক আনন্দ মিছিল করেন স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের নেতাকর্মীরা। আগামী রোববার সারাদেশে শিক্ষকরা আনন্দ মিছিল করবেন বলেও জানান শাজাহান আলম সাজু।

এদিকে, গতকাল বুধবার বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট দিতে ৫৩১ কোটি ৮২ লাখ টাকা এবং ২০ শতাংশ বৈশাখী ভাতা দিতে ১৭৭ কোটি ২৭ লাখ টাকা বরাদ্দ চেয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অর্থ মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয়া হয়। এর একদিন পর শিক্ষকদের দাবি-দাওয়া মেনে নেয়ার ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী।

এমএইচএম/জেডএ/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :