নীলক্ষেতে সাত কলেজ শিক্ষার্থীদের অবরোধ

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১২:০০ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০১৯

পূর্ব ঘোষিত ৫ দফা দাবি আদায়ে রাজধানীর নীলক্ষেত মোড়ে সড়ক অবরোধ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) সকালে প্রথমে মানববন্ধন ও পরে মিছিল নিয়ে নীলক্ষেত মোড়ে সড়ক অবরোধ করে তারা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শিক্ষার্থীরা সকাল ১০টায় ঢাকা কলেজের সামনে মানববন্ধন করে। মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে নীলক্ষেত মোড়ে সড়ক অবরোধ করে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে শিক্ষার্থীরা।

সরকারি বাংলা কলেজের সম্মান (বাংলা) শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী আমির হোসেন বলেন, আমরা দীর্ঘ সময় আন্দোলন করেছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আমাদের আশ্বাস দিয়েছিল যে, আমাদের সবকিছুই শৃঙ্খলার মধ্যে আসবে। নিয়মিত পরীক্ষা নেয়া ও ফল প্রকাশ করা হবে, সেশনজটে ফেলানো হবে না। কিন্তু আমাদের শুধু আশ্বাসই দিয়েছে, কোনো কিছুই বাস্তাবায়ন হয়নি। এ কারণে শুধু আমরা না, অনার্স-মাস্টার্স এমনকি যারা ডিগ্রিতে রয়েছেন তারাও শঙ্কায় পড়েছেন।

তিনি আরও বলেন, অনেক শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিয়েও ফল পাচ্ছেন না। অনেকের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে না। ঢালাওভাবে ফেল করে দেয়া হচ্ছে। সামনে ফাইনাল ইয়ারের (সম্মান শেষ বর্ষ) ফল প্রকাশ করা হবে। আমরা শঙ্কায় রয়েছি যে, আমাদেরও একই কারণে ফেল করানো হবে। এসব বিষয়ে নিয়েই আমরা আন্দোলনে যুক্ত হয়েছি।

প্রয়োজনে রাস্তায় বসে জীবন দেবেন তবুও দাবি পূরণ না হলে আন্দোলন থামানো হবে না বলেও জানান এ শিক্ষার্থী।

এর আগে গতকাল সোমবার (২২ এপ্রিল) সেশনজট, ত্রুটিযুক্ত ফলাফলসহ নানা সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে আন্দোলনের ডাক দেয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা ৫ দফা দাবি জানান।

দাবিগুলো হচ্ছে-

১. একসঙ্গে পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে ত্রুটিমুক্ত ফলাফল প্রকাশসহ একই বর্ষের সব বিভাগের ফলাফল একত্রে প্রকাশ
২. গণহারে অকৃতকার্য হওয়ার কারণ প্রকাশসহ খাতা পুনঃমূল্যায়ন
৩. সাত কলেজ পরিচালনার জন্য স্বতন্ত্র প্রশাসনিক ভবন
৪. প্রতিটি বিভাগে মাসে দু’দিন করে অধিভুক্ত সাত কলেজে মোট ১৪ দিন ঢাবি শিক্ষকদের ক্লাস নেয়া
৫. সেশনজট নিরসনে একাডেমিক ক্যালেন্ডার প্রকাশসহ ক্রাশ প্রোগ্রাম চালু।

এমইউ/আরএস/এমকেএইচ