আবারও এনসিটিবি চেয়ারম্যান ফরহাদুল ইসলাম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:০৪ পিএম, ২৪ মে ২০২২

বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অধ্যাপক মো. ফরহাদুল ইসলামকে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) চেয়ারম্যান নিয়োগ দিয়েছে সরকার। নতুন করে তাকে চুক্তিভিত্তিক দুই বছর মেয়াদে এ পদে বসানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৪ মে) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোহা. রফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮ এর ধারা-৪৯ অনযায়ী অবসরোত্তর ছুটি ভোগরত বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) ক্যাডারের কর্মকর্তা অধ্যাপক মো. ফরহাদুল ইসলামকে এনসিটিবির চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হলো। এসময় তার অবসরোত্তর ছুটি ও সংশ্লিষ্ট সুবিধাদি স্থগিতের শর্তে তাকে নতুন করে দুই বছরের জন্য চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।

এতে আরও বলা হয়েছে, এ নিয়োগের শর্তাবলি অনুমোদিত চুক্তিপত্র দ্বারা নির্ধারিত হবে। জনস্বার্থে এ আদেশ জারি করা হয়েছে। দ্রুত সেটি কার্যকর করতে বলা হয়েছে।

এর আগে অধ্যাপক ফরহাদুল ইসলাম দীর্ঘ দিন এনসিটিবিতে বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ অবসরের তিন মাস আগে তাকে এ প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান পদে বসানো হয়। দুই মাস আগে তিনি অবসরে গেলেও নতুনভাবে তাকে আবারও চেয়ারম্যান পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেওয়া হলো।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফরহাদুল ইসলাম মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জাগো নিউজকে বলেন, সরকার আমার প্রতি আস্থা রেখে দ্বিতীয় দফায় আমাকে দুই বছরের জন্য এনসিটিবি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব দিয়েছে। আমি এ প্রতিষ্ঠানের সবাইকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করবো।

তিনি বলেন, আগামী বছর নির্ধারিত সময়ে শিক্ষার্থীদের হাতে মানসম্মত বই তুলে দেওয়া হবে আমার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। সে কাজটি আমি যথাযথভাবে করতে চাই। বিনামূল্যের পাঠ্যবই নিয়ে যেন কারও মধ্যে বড় অভিযোগ না থাকে সেটিকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হবে।

এনসিটিবি চেয়ারম্যান আরও বলেন, এবার প্রেসগুলোতে পরিদর্শন কাজে আরও নজরদারি বাড়াতে প্রথমবারের মতো দুটি আলাদা প্রতিষ্ঠানকে দায়িত্ব দেওয়া হবে। কোনো একটি প্রতিষ্ঠান ছাড় দিলেও অন্যটি যেন সঠিক চিত্র তুলে ধরে সে লক্ষ্যে দুই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে পরিদর্শন কাজ চলবে।

এমএইচএম/এমকেআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]