আবারও অভিনয়ে প্রীতি

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৫ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০১৮

বলিউডের পর্দা কাঁপিয়েছেন হাতে গোনা যে কয়েকজন গালে টোল পড়া অভিনেত্রী, প্রীতি জিনতার নাম তার অগ্রভাগেই থাকবে। দীর্ঘ বিরতির পর আবারও অভিনয়ে ফিরছেন তিনি। সানি দেওয়ালের সঙ্গে অভিনয় করছেন ‘ভাইয়াজি সুপারহিট’ নামে একটি ছবিতে।

সম্প্রতি তিনি এসেছিলেন কলকাতায়। সেখানে নিজের নতুন সিনেমা নিয়ে প্রীতি বলেন, ‘এখন একটা ছবি বড় হিট হওয়ার পর আমরা তাকে বলি কমার্শিয়াল ছবি। তবে ‘ভাইয়াজি সুপারহিট’ রিয়্যালিস্টিক ছবি নয়। আমার পুরো কেরিয়ারে আমি এরকম ছবি করিনি। তাই আমার জন্য এটা খুব অন্যরকমের ছবি।’

তিনি বলেন, ‘মনে মনে আমি একটা দেশি মেয়ের রোল করতে চাইছিলাম। সারা জীবন আমি পরিচালকদের বলে এসেছি, ‘আমাকে একটা দেশি রোল দেবে’? ওরা বলেছে ‘আরে তোমাকে তো দেশি লাগেই না!’ তাই আমি চিরকাল এনআরআই রোল বা কাশ্মীরি রোল পেয়ে এসেছি।’

অভিনয় থেকে ব্রেক নিয়ে তিনি জড়িয়েছেন ক্রিকেটে, যৌথ মালিকানায় কিনেছেন আইপিএলের দল 'কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব'। এ নিয়ে প্রীতি বলেন, ‘২০০৬-এ সুনামির সময় আমি ভাবছিলাম, এই তো জীবন। আমি কি সারা জীবন অভিনয়ই করে যাব? কত কিছুই তো করতে চাই।’

তিনি বলেন, ‘যখন ক্রিকেটে এলাম ততক্ষণে আমি তৈরি হয়ে গিয়েছি যে অন্য রকম কিছু করবই। বিজনেস করব। যখন বড় হচ্ছি তখন থেকেই আমার মনে হত যে আমার মতো একজন ছোট শহরের মেয়ে যদি একটা বিলিয়ন ডলার ইন্ডাস্ট্রিতে কিছু গড়তে পারি, তাহলে যে কোনো ছোট শহরের মেয়েরই মনে হবে ও যদি করতে পারে তাহলে আমিও পারব।’

প্রীতি জিনতা বলেন, ‘আমার অভিনেত্রীর সত্ত্বাটাই তখন সব থেকে বড় বাধা হয়ে দাঁড়ায়। কেউ সিরিয়াসলি নেয়নি। যা কিছুই করতাম প্রচণ্ড ক্রিটিসিজম পেয়েছি শুধুমাত্র হিরোইন বলে। আমার উপস্থিতিতে পুরুষদের অস্বস্তি হত কারণ ওই আলফা-মেল আবহাওয়ায় আমিই একমাত্র মেয়ে ছিলাম।’

তিনি বলেন, ‘তখন আমি নিজের দিকে নজর দেয়া বন্ধ করলাম। যদি আমার টিমের প্রথম আইপিএল অকশন দেখেন আর আজ আমাকে দেখেন, দেখবেন আমি স্টার থেকে নিজেকে একেবারে সরিয়ে একটা সাধারণ মেয়ের পর্যায় নামিয়ে এনেছি --- জিন্স, চুল এলোমেলো, মোটা হয়েছি। স্বতঃস্ফূর্তভাবেই করেছি। তা না হলেই আমার সম্বন্ধে লেখা হবে আমি এর-তার সঙ্গে অ্যাফেয়ার করছি।'

তিনি আরও বলেন, ‘একবার শোয়েব আখতার শাহরুখকে কোলে তুলে নিয়েছিল। এনিয়ে কেউ একটাও কথা বলেনি। অথচ আমাকে যুবরাজ জড়িয়ে ধরার পর সবাই বলতে শুরু করল যে আমার সঙ্গে তার অ্যাফেয়ার চলছে। কিন্তু আমার একটা নিয়ম আছে --- কাজের জায়গায় আমি কারও সঙ্গে জড়িয়ে পড়ি না। কারণ মেয়ে হিসেবে যদি আপনি শ্রদ্ধা পেতে চান, তাহলে এভাবেই পাবেন। কারণ কোনো পুরুষের যদি আপনার কাছ থেকে কিছু পাওয়ার থাকে তাহলে তারা আপনাকে কোনোদিন রেসপেক্ট করবে না।’

সব শেষে প্রীতির মন্তব্য, ‘কিছু পাওয়ার জন্য তো কিছু ছাড়তেই হয়। ক্রিমিনাল সাইকোলজি ছেড়েছিলাম অভিনেত্রী হব বলে। সাজগোজ ছেড়েছি ক্রিকেটের জন্য। আবার সাজগোজে ফিরছি অভিনয়ের জন্য।’

এমএমজেড/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]