ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলায় বিপাকে অক্ষয়

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৫ এএম, ২২ নভেম্বর ২০১৮

তিন বছরের পুরনো মামলায় বিপাকে পড়েছেন অভিনেতা অক্ষয় কুমার। ২০১৫ সালে তার বিরুদ্ধে শিখদের ধর্মীয় ভাবাবেগে ‘আঘাত’ করার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছেল। সেই মামলায় গতকাল বুধবার (২১ নভেম্বর) তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

চণ্ডিগড়ে সিটের (আদালত গঠিত বিশেষ তদন্তকারী দল) কাছে হাজিরা দিয়েছেন বলিউড এ তারকা। দুই ঘণ্টা ধরে চলা জেরায় নিজেকে সম্পূর্ণ নির্দোষ দাবি করেছেন অক্ষয়।

অক্ষয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০১৫ সালে জুহুতে নিজের ফ্ল্যাটে তত্কালীন ডেরা সাচ্চা সৌদা প্রধান তথা ধর্ষক বাবা রাম রহিমের সঙ্গে সে সময়ের পাঞ্জাবের উপ-মুখ্যমন্ত্রী সুখবীর সিং বাদলের সাক্ষাত্ করিয়ে দেন বলিউড তারকা। সেই বৈঠকের পর পাঞ্জাবে মুক্তি পায় ধর্ষক রাম রহিমের বিতর্কিত ছবি। যে ছবিতে শিখ ধর্মগ্রন্থ ‘গ্রন্থ সাহেব’-কে অপমান করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। অশান্তি ছড়িয়ে পড়ে গোটা পাঞ্জাবে।

এ মামলায় পাঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী প্রকাশ সিং বাদল, উপ-মুখ্যমন্ত্রী সুখবীর সিং বাদলকে ইতোমধ্যে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে তদন্তকারী দল। তবে সাবেক বিচারপতি রনজিত্ সিংয়ের নেতৃত্বে গঠিত কমিটি অক্ষয়ের বিরুদ্ধে একাধিক গুরুতর অভিযোগ এনেছেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই অক্ষয় কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

হাজিরা দেওয়ার আগেই তার বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অক্ষয়। এক টুইট বার্তায় তিনি দাবি করেন, রাম রহিমের সঙ্গে কখনও তার সরাসরি দেখা হয়নি। যে সময় রাম রহিমের সঙ্গে সুখবীর বাদলের দেখা করিয়ে দেয়ার অভিযোগ রয়েছে সে সময় রাম রহিম জুহুতে ছিলেন। এটা তিনি শুনেছেন। তবে কখনওই বিতর্কিত ধর্মগুরুর সঙ্গে তার দেখা হয়নি।

এছাড়া শিখ ভাবাবেগে আঘাত করার অভিযোগও অস্বীকার করেছেন তিনি। বলেছেন, ‘আমি একজন নিষ্ঠাবান শিখ। সারাজীবন একাধিক ছবিতে শিখ সংস্কৃতিকে তুলে ধরার চেষ্টা করে এসেছি। শিখদের সংস্কৃতিকে আমি সবসময় সম্মান করি।’ সূত্র : আজকাল

আরএস/আরআইপি

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]