সবাইকে চমকে দিয়ে বিজেপির সংগঠনে বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৪০ এএম, ১৫ জুলাই ২০১৯

টালিপাড়ায় চমক দিল গেরুয়া শিবির। সঙ্ঘ এবং বিজেপির অনুমোদন নিয়ে চলচ্চিত্র জগতের শিল্পী ও কলাকুশলীদের একজোড়া সংগঠন সম্প্রতি পাপড়ি মেলেছে টালিগঞ্জে। ফিল্ম এবং টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রিতে পরিচিত হয়ে উঠা কিছু কিছু মুখ শামিলও হয়েছে সেখানে। কিন্তু ছাপ মারা সিপিএম হিসেবে পরিচিত বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়কে গেরুয়া ছাতার তলায় হাজির করে টালিউডে অনেককেই এবার চমকে দিল বঙ্গীয় চলচ্চিত্র পরিষদ (বিসিপি)।

রাজ্যের এক মন্ত্রী এবং তার ভাইয়ের যে একচ্ছত্র দাপট গত বেশ কিছু বছর ধরে শাসন করছে টালিউড ও টেলিউডকে, তা মেনে নিতে এখনও প্রস্তুত নন বেশ কিছু শিল্পী ও কলাকুশলী। সর্বাগ্রে তাদের দরজাতেই পৌঁছাচ্ছে বিসিপি। সেই প্রচেষ্টাতেই উল্লেখযোগ্য সাফল্য পেয়েছেন শঙ্কুদেব।

এককালে শঙ্কু তৃণমূল ছাত্র পরিষদের দাপুটে সভাপতি ছিলেন। দল তার সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করার পরে শঙ্কু কিছুদিন রাজনীতি থেকে দূরে ছিলেন। পরে বিজেপিতে যোগ দেন। তবে রাজনীতি থেকে দূরে থাকাকালীন শঙ্কু একটি বাংলা ছবি তৈরি করেছিলেন। সে সময় থেকেই টালিউডের সঙ্গে তার যোগাযোগ দৃঢ় হতে শুরু করে। সেই সূত্রেই এখন গেরুয়া শিবিরের টালি সংগঠনের অন্যতম নেতা শঙ্কু। গত কয়েক সপ্তাহে টালিউডের অনেক সিনিয়র ও পরিচিত মুখের সঙ্গে শঙ্কুদেব পণ্ডা কথা বলেছেন বলে খবর। শনিবার বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে তার ঘণ্টা দেড়েক বৈঠক হয় বলে শঙ্কু জানিয়েছেন। তার পরেই বিল্পব শামিল হয়েছেন বিসিপি-তে।

আপাতত পরামর্শদাতা হিসেবে বিপ্লব চট্টোপাধ্যায় বিসিপির সঙ্গে থাকছেন। পরামর্শদাতা কমিটির সদস্য হওয়ায় সম্মতি দিয়ে বিপ্লব চট্টোপাধ্যায় যে চিঠিতে সই করেছেন, তা-ও রোববার প্রকাশ্যে আনা হয়েছে বিসিপির পক্ষ থেকে।

biplob-2

বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়, সব্যসাচী চক্রবর্তী বা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়রা ঘোষিত বামপন্থী। বাম জমানায় রাজ্যের প্রধান শাসক দল সিপিএমের সঙ্গে তাদের ঘনিষ্ঠতা ছিল যথেষ্টই। সৌমিত্র বা সব্যসাচীদের সেভাবে ঝাণ্ডা ধরতে দেখা যায়নি। কিন্তু বিপ্লবকে সক্রিয় রাজনীতিতেও দেখা গেছে। তিনি বিধানসভা নির্বাচনে সিপিএমের টিকিটে লড়েন।

রাজ্যের ক্ষমতার অলিন্দে পরিবর্তন আসার পরে টালিউডের অধিকাংশ লোকজনই তৃণমূলের দিকে ঝুঁকে পড়েন। কিন্তু সৌমিত্র, সব্যসাচী, বিপ্লবরা সে তালিকায় নাম লেখাননি। বামপন্থার প্রতিই আস্থা দেখিয়ে গেছেন এবং তৃণমূলের সঙ্গে উল্লেখযোগ্য দূরত্ব বজায় রেখেছেন।

বিপ্লব এবার আরও এক ধাপ এগিয়ে গেলেন। শুধু তৃণমূলের সঙ্গে দূরত্ব বজায় রাখা নয়, তৃণমূলের সক্রিয় বিরোধিতা শুরু করার ইঙ্গিতই তিনি দিয়ে দিলেন বিজেপির টালি সংগঠনের পরামর্শদাতা কমিটিতে প্রবেশ করে।

শঙ্কুদেব পন্ডার বলেন, ‘বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়ের মতো ব্যক্তিত্বকে পাশে পাওয়াটা খুব বড় ব্যাপার। তিনি বিসিপির পরামর্শদাতা হওয়ায় টলিউডে অনেকেই চমকে গেছেন। তবে আরও চমক অপেক্ষা করছে।

সূত্র : আনন্দবাজার

জেডএ/পিআর

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]