দরিদ্র ও পথশিশুদের মাঝে ৭শ’ স্কুলব্যাগ বিতরণ

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:০৬ পিএম, ২৬ জানুয়ারি ২০১৯

সামাজিক সম্পর্ক উন্নয়নের মধ্য দিয়ে সামাজিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করাই এমএসএসসি এর প্রধান লক্ষ্য। ক্ল্যাবের সদস্যরা সবাই তরুণ। তারা উচ্চশিক্ষা বা চাকরির জন্য মাদারীপুরের বাইরে দেশের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান করছেন। তবে বিভিন্ন উৎসব কিংবা বিশেষ কোন ছুটিতে মাদারীপুরে একত্রিত হয়ে ভিন্নধর্মী সামাজিক উদ্যোগ গ্রহণ করছেন।

তারই ধারাবাহিকতায় মাদারীপুর সোস্যাল সার্ভিস ক্লাব (এমএসএসি) গত ২৫ জানুয়ারি (শুক্রবার) সকালে শকুনী লেকপাড়ে ২২টি স্কুলের ৭০০ শিক্ষার্থীকে স্কুলব্যাগ দেওয়া হয়। ‘প্রজেক্ট স্কুলিং’ কর্মসূচির মাধ্যমে ব্যাগ প্রদানে সহযোগিতা করে গুড লাক স্টেশনারি ও আইপিডিসি ফাইন্যান্স।

bag-cover.jpg

> আরও পড়ুন- বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ছে বাংলাদেশের রাশেদের সুনাম

গত ৬ বছরের যাত্রায় প্রজেক্ট স্কুলিং কর্মসূচির মাধ্যমে বছরের শুরুতে নতুন বইয়ের সাথে নতুন একটি স্কুলব্যাগ পাওয়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে আনন্দের বন্যা বয়ে যায়। এতে শিশুদের পড়াশোনা এবং স্কুলের প্রতি আগ্রহ বাড়বে বলে ধারণা করছে প্রজেক্টের সদস্যরা। সরকারের বই উৎসবের সাথে নতুন মাত্রা যোগ করছে এই প্রজেক্ট স্কুলিং।

bag-cover.jpg

মাদারীপুর সোশ্যাল সার্ভিস ক্ল্যাবের সহ প্রতিষ্ঠাতা ও প্রজেক্ট স্কুলিংয়ের সমন্বয়ক মেহেদী শামীম বলেন, ‘আমরা প্রতি বছরই প্রজেক্ট স্কুলিং করে থাকি। আমাদের চেষ্টা থাকে নতুন বেশিসংখ্যক শিশুর হাতে নতুন ব্যাগ পৌঁছে দেওয়ার। সে চেষ্টা থেকে এ বছর ৭০০ ব্যাগ বিতরণ করা হয়েছে। ভবিষ্যতে সংখ্যাটি দ্বিগুণ করার চেষ্টা করবো।’

> আরও পড়ুন- বিদ্যালয়ে মহানুভবতার দেয়াল

ক্ল্যাবের সহ প্রতিষ্ঠাতা খন্দকার রাশেদ আহমেদ রিফাত বলেন, ‘দায়িত্ববোধ থেকেই উদ্যোগগুলো নিয়ে থাকি। প্রজেক্ট স্কুলিং একটি গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ। দরিদ্র মেধাবী শিশুদের হাতে নতুন ব্যাগ দিতে চেষ্টা করি। যাতে ব্যাগটি তাকে বেশি বেশি স্কুলে যেতে উৎসাহ দেয়।’

bag-cover.jpg

অপর সহ প্রতিষ্ঠাতা ইশতিয়াক আহমেদ শাওন বলেন, ‘প্রজেক্ট স্কুলিং ছাড়াও প্রজেক্ট নতুন জামা, প্রজেক্ট ফরওয়ার্ড, প্রজেক্ট উষ্ণতা নামে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছি। গত ৬ বছরে আমরা প্রজেক্ট স্কুলিংয়ের মাধ্যমে ২ হাজার ৩০০ শিক্ষার্থীকে নতুন ব্যাগ দিয়েছি।’

এসইউ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :