এবার গ্রামেও মানবতার দেয়াল!

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৪৭ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

একঝাঁক স্বপ্নবাজ তরুণ! তরুণরা সবই পারে- এ বিশ্বাস বুকে নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়লো একটি মহতী কাজে। নিজেদের মেধা আর শ্রমকে মানুষের সেবায় নিয়োজিত করল। একঝাঁক তরুণ প্রমাণ করল গ্রামেও গড়ে তোলা যায় মানবতার দেয়াল! বিস্তারিত জানাচ্ছেন মোহাম্মদ হেলালুজ্জামান-

যে সময়ে অনেক তরুণ অসামাজিক কাজে জড়িয়ে ভুল পথে এগিয়ে যায়; সে সময়ে টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার ফাজিলহাটি ইউনিয়নের কিছু স্বপ্নবাজ তরুণ মিলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে ‘মানবতার দেয়াল’ গড়ার। তারা ভাবলো, অসহায় শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়াবে সম্মিলিতভাবে।

deyal-cover

যেই চিন্তা; সেই কাজ। ফেসবুকে পোস্ট করে শুরু হলো প্রচারণা। শুরু হলো এক নতুন আলোকিত পথে যাত্রা। তৈরি হলো ব্যানার-ফেস্টুন। মানবতার দেয়ালের সেই ব্যানার-ফেস্টুন টানানো হলো এলাচিপুর-চরপাড়া বাজারে। শুরু হলো সাধারণ মানুষের মাঝে কৌতূহল, সচেতনতা। এরপর আন্তরিকভাবে এগিয়ে আসা। সবাই যার যার সাধ্যমতো শীতবস্ত্র জমা দিলো সেখানে।

deyal-in

এ কাজে হেলাল, লেবু, জাকির, ফিরোজ, সুমি, মাসুদ, রাজ্জাক, শাকিল, সিরাজুল, আমির, বাদল, ওমর, আমির, প্রদীপ, গোপাল, জাহিদ, আমিনুর, হান্নান মাস্টার, আনোয়ার, রিয়াদ, মনির, মাইনুল, রানা, রেজা, আজিজ, ফয়সাল, মুখলেস, টিটু, সিফাতসহ অনেকেই যুক্ত হলেন। জমাকৃত শীতবস্ত্র বিতরণের সময় নির্ধারিত হলো।

মহতী এ উদ্যোগের যাত্রা শুরু হলো ফাজিলহাটি ইউনিয়নে। প্রাথমিকভাবে কুমারজানী, এলাচিপুর, বেতবাড়ি, কামান্না, গাছপাড়া, ফুলতারাসহ দেলদুয়ার সদর ইউনিয়নের টুকনিখুলা গ্রামের অসহায় শীতার্ত মানুষের হাতে তুলে দেওয়া হলো উত্তোলিত শীতবস্ত্র।

deyal-in

এমন উদ্যোগের পর স্বপ্নবাজ তরুণরা আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ইউনিয়ন বা ইউনিয়নের পাশের এলাকায় বিনামূল্যে চক্ষু শিবিরের ব্যবস্থা করতে যাচ্ছে। পাশাপাশি মানবতার দেয়ালকে ইউনিয়নভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হিসেবে তৈরি করে সব শ্রেণির মানুষকে এক কাতারে আনতে চায়। এছাড়া তারা তৈরি করবে পাঠাগার, থাকবে সচেতনতামূলক বিভিন্ন কর্মসূচি।

এসইউ/পিআর