কাতারিদের ভিসা ছাড়া প্রবেশের সুযোগ বন্ধ করল মিসর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:২৪ এএম, ১৮ জুলাই ২০১৭

দোহার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কচ্ছেদের পর কাতারের নাগরিকদের বিরুদ্ধে নতুন বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে মিসর। ভিসা ছাড়াই কাতারি নাগরিকদের মিসরে প্রবেশের সুযোগ আর থাকছে না। 

সোমবার দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বলছে, মিসরে প্রবেশ করতে হলে এখন থেকে কাতারি নাগরিকদের ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। দোহার বিরুদ্ধে উপসাগরীয় দেশগুলোর আরোপিত সর্বশেষ পদক্ষেপ এটি। 

মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অাহমেদ আবু জিয়াদ বলেন, কাতারের বিরুদ্ধে আগের সিদ্ধান্ত বলবৎ রাখা এবং বর্তমান সিদ্ধান্তের ফলে বোঝা যায় যে, তাদের কোনো রকম সুবিধা দেয়া হবে না।

তিনি আরও বলেন, এই কড়াকড়ির কারণে মিসরীয় বংশোদ্ভুত শিশু কিংবা স্বামী, স্ত্রী কেউই ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। একইভাবে কাতারি বংশোদ্ভুত এবং মিসরের বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। 

কায়রো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, অাগামী বুধবার অথবা বৃহস্পতিবার থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হতে পারে। 

মিসরের সরকারি সংবাদমাধ্যম ‘আহরাম’ বলছে, এ সিদ্ধান্তের ফলে কাতারের সাধারণ পাসপোর্টধারীদের পাশাপাশি কূটনৈতিক বা বিশেষ ভ্রমণকারীরাও ক্ষতিগ্রস্ত হবে। 

প্রসঙ্গত, সৌদি আরবের নেতৃত্বে মিসর, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত গত ৫ জুন কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে অাকাশপথ, সমুদ্র ও স্থলবন্দর বন্ধ করে দেয়। এরপর সর্বমোট নয়টি দেশ কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কের মাত্রা কমিয়ে আনে।  

ইরান ঘনিষ্ঠতা বজায় রাখা এবং জঙ্গি সংগঠনগুলোকে সমর্থন, অর্থায়ন ও লালন-পালনের অভিযোগে দেশগুলো দোহার সঙ্গে তাদের কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে। তবে এসব অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে কতার। 

দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে অবরোধ চলার পর সৌদি আরবের নেতৃত্বে মিসর, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত ১৩ টি শর্ত দিয়ে কাতারকে ১০ দিনের সময় বেঁধে দেয়। সেই শর্তগুলোর মধ্যে আল জাজিরা টেলিভিশন বন্ধ করে দেয়া ছিল প্রথম শর্ত। তবে সেইসব শর্ত অযৌক্তিক হিসেবে প্রত্যাখ্যান করেছে দোহা।  

সৌদি জোটের দেয়া শর্তের নিন্দা জানিয়েছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক অধিকার সংস্থা, জাতিসংঘ এবং বিভিন্ন রাষ্ট্রের নেতারা। এরকম পরিস্থিতিতে কাতারিদের বিরুদ্ধে নতুনভাবে ভিসা জটিলতা তৈরির ঘোষণা দিল মিসর। 

কেএ/এসআইএস/এমএস

অাগামী বুধবার অথবা বৃহস্পতিবার থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হতে পারে

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :