ভারত-পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পাল্টাপাল্টি হুমকি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৪৩ এএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ভারত-পাকিস্তানের সীমান্ত নিয়ে দ্বন্দ্ব দীর্ঘদিনের। সম্প্রতি দেশ দুটির মধ্যে সামরিক উত্তেজনা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। পাকিস্তান সেনাবাহিনী হামলার কড়া জবাব দেয়া জরুরি বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ভারতীয় সেনাপ্রধান। অন্যদিকে ভারতের সঙ্গে যুদ্ধ করতে প্রস্তুত আছে বলে হুমকি দিয়েছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী।

ভারতের সঙ্গে যুদ্ধ করতে পাকিস্তান সেনাবাহিনী প্রস্তুত বলে দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গাফফার বরাত দিয়ে যে সংবাদ বের হয়েছে তা মূলত ভারতীয় সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াতের বক্তব্যের পাল্টা জবাব।

সম্প্রতি জম্মু ও কাশ্মীরে তিন পুলিশকর্মীকে হত্যা করা হয়েছে। এক বিএসএফ জওয়ানও মারা গেছেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ভারতের সেনাপ্রধান বলেছেন, ‘আমাদের জওয়ানদের উপর জঙ্গি ও পাকিস্তানের সেনাবাহিনী যে বর্বরোচিত হামলা চালাচ্ছে, তার বদলা নেয়ার জন্য কড়া ব্যবস্থা জরুরি। ওদের একইরকম জবাব দিতে হবে। তবে ওদের মতো বর্বরোচিত কাজ করা যাবে না। ওদেরও একইরকম যন্ত্রণা ভোগ করতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পাকিস্তান যখনই সীমান্তে ভারতের বিরুদ্ধে কিছু করেছে, তখনই আমরা ওদের উপর পাল্টা আক্রমণ চালিয়েছি। পাকিস্তানের অনেক ক্ষতি হয়েছে। আমরা ওদের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার অনেক ক্ষতি করেছি। তবে কখনও বর্বর আচরণ করিনি। ওরা মে মাসে সংঘর্ষ বিরতির আবেদন জানায়। আমরা সেই আবেদন মেনে নেই। তবে ওরা যদি এ ধরনের আচরণ চালিয়ে যায়, তাহলে আমাদের ব্যবস্থা নিতে হবে।’

ভারতের সেনাপ্রধানের এমন বক্তব্যের পাল্টা বক্তব্যও দিয়েছে পাকিস্তানের সেনা বাহিনী। দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গাফফার বলেছেন, ‘আমরা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত। কিন্তু পাকিস্তানি জনগণ, প্রতিবেশী ও এ অঞ্চলের স্বার্থে শান্তির পথে হাঁটতে চাই।’

এদিকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতের সঙ্গে পুনরায় আলোচনা শুরু করতে চেয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে যে চিঠি দিয়েছিলেন তা প্রত্যাখ্যান করেছে ভারত। তারা বলছে, ভারতীয় জওয়ানদের সঙ্গে পাক রেঞ্জার্সের সদস্যদের বর্বরতম আচরণের পর আলোচনার টেবিলে বসার কোনো অর্থই হয় না।

আরএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :