মন্ত্রণালয়ের সম্পত্তি বিক্রির ঘোষণা দিলেন ইমরান খান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:১৫ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৯

পাকিস্তানের মন্ত্রিসভা দেশটির বেশ কিছু মন্ত্রণালয়ের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মঙ্গলবার পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরানের খানের সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে দেশটির জাতীয় দৈনিক ডনের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

ডনের প্রতিবেদন অনুাযয়ী, দেশটির সংকুচিত অর্থনীতিকে গতি দিতে ইমরান খানের সরকারি ব্যয় কমানোর নীতি হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির মন্ত্রিসভা। আর এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে কয়েক হাজার কোটি রুপি সরকারি কোষাগারে যুক্ত করা সম্ভব হবে।

গত বছর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার পর থেকে ইমরান খান সরকারি ব্যয় কমানোর কথা জানান ইমরান খান। তারই ধারবাহিকতায় এমন সিদ্ধান্ত নিল দেশটির মন্ত্রিসভা।

ইমরান ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রীর অফিসে কাটছাঁট, সিভিল সার্ভিস এবং ফেডারেল অফিসে সংস্কার এবং বিমানবন্দরে ভিআইপি নিরাপত্তা নিষিদ্ধসহ সরকারি বুলেটপ্রুফ গাড়ি বিক্রি করে কোটি কোটি রুপি সরকারি কোষাগারে জমা দেয়ার ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন>> মসজিদে হামলায় উল্লাস প্রকাশ করে চাকরি থেকে বরখাস্ত

দেশটির মন্ত্রিসভা সরকারি বিভিন্ন শাখার বিভাগ ও দফতরের প্রধান নিয়োগের ক্ষেত্রে নতুন বিধি জারি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এখন থেকে এসব বিভাগ ও দফতরের প্রধানদের নিয়োগ দেয়ার ক্ষমতা দেয়া হবে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীদের।

মন্ত্রিসভার বৈঠকের বিস্তারিত তথ্য জানাতে সংবাদ সম্মেলন করেন দেশটির তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী। তিনি বলেন, সরকার কেন্দ্রীয় মন্ত্রণালয় এবং বিভাগ-দফতরসমূহের অব্যবহৃত স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান মন্ত্রণালয়গুলোর এমন সম্পত্তির তালিকা চেয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর এমন নির্দেশনার পর বিভিন্ন মন্ত্রণালয় দ্রুতগতিতে এসব সম্পত্তির তালিকা তৈরি করেছে বলে জানান তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী। তবে এসব সম্পত্তি কবে নাগাদ নিলামে তোলা হবে কিংবা বিক্রি করা হবে এ বিষয়ে কিছু জানাননি তিনি।

এসএ/এমএস