চিদাম্বরমের গ্রেফতারের নেপথ্যে এক নারী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৪৭ এএম, ২৩ আগস্ট ২০১৯

আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় গ্রেফতার ভারতের সাবেক কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরাম পাঁচ দিনের সিবিআই রিমান্ডে আছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত তা মঞ্জুর করে।

এর আগে বুধবার সন্ধ্যায় চিদাম্বরামকে গ্রেফতার করে সিবিআই

পি চিদাম্বররের এই সংকটের নেপথ্যে রয়েছে শ্রীঘরে বন্দি অন্যতম প্রভাবশালী নারী ব্যক্তিত্ব ইন্দ্রাণী মুখার্জি।

আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি কাণ্ড ও ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায় আইএনএক্স মিডিয়ার অন্যতম দুই প্রোমোটার ছিলেন ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায় ও তার স্বামী পিটার। আর্থিক তছরুপের দায়ে তাদের বিরুদ্ধেও রয়েছে একাধিক অভিযোগ। আর আইএনএক্স মিডিয়ার অর্থ জালিয়াতি মামলায় এই ইন্দ্রাণী মুখার্জির বয়ানেই উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য, যা বিপাকে ফেলে দেয় প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী চিদাম্বরমের মতো কংগ্রেস নেতাকে।

ইন্দ্রাণীর দেয়া তথ্য আদালতে পেশ করেছে ইডি। সেই তথ্য অনুযায়ী, আইএনএক্স মিডিয়ার দুজন প্রোমোটার ও একজন সিনিয়র এক্সিকিউটিভ তৎকালীন অর্থমন্ত্রী চিদাম্বরমের দ্বারস্থ হন। সেই সময় বিদেশি অর্থ বিনিয়োগের বিষয়ে তারা দেখা করেন চিদাম্বরমের সঙ্গে। প্রসঙ্গত, যে আর্থিক লেনদেনের বিষয়ে চিদাম্বরমের সঙ্গে তাদের কথা হয়, সেই আর্থিক লেনদেন এফআইপিবি খারিজ করেছিল আগেই।

ইন্দ্রাণী জানিয়েছেন, সেই লেনদেনের বিষয়টিতে সেই সময় ছাড়পত্র দিয়ে দেন চিদাম্বরম। তবে শর্ত আরোপিত হয় যে, চিদাম্বরমের ছেলে কার্তীকে তাদের ব্যবসায় জায়গা করে দিতে হবে। তবে আর্থিক লেনদেনের মূল অঙ্ক জানাননি ইন্দ্রাণী।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে ভারতের পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভার সদস্য চিদাম্বরামকে বৃহস্পতিবার সিবিআই জিজ্ঞাসাবাদ করে। এরপর পি তাকে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড চায় সিবিআই। পরে আদালত রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এ সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন চিদাম্বরমের স্ত্রী নলিনী ও পুত্র কার্তি।

চিদাম্বরামকে গ্রেফতারের পর সিবিআই ভবনের লক-আপ স্যুট-৩তে রাখা হয়েছে। কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালীন তিনি সে সময় সিবিআই ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ছিলেন এবং তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনোমোহন সিংকে সঙ্গে নিয়ে এই ভবনের লক-আপের সুবিধাগুলো পরিদর্শন করেছিলেন।

চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন ২০০৭ সালে বিদেশ থেকে ৩০৫ কোটি টাকার তহবিল পাওয়ার জন্য আইএনএক্স মিডিয়াকে ছাড়পত্র দিয়েছিলেন। এর বিনিময়ে ছেলে কার্তি চিদাম্বরমের সংস্থাকে বিরাট অঙ্কের ঘুষ দেয় আইএনএক্স মিডিয়া।

তিনি অতীতে বিভিন্ন সময় অর্থমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পেনশনবিষয়ক মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। নির্বাচিত হয়েছিলেন নিম্নকক্ষ লোকসভার সদস্য হিসেবেও।

জেডএ/এমএস