চিকিৎসক তরুণীকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২৮ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৯

এক তরুণী চিকিৎসকের দগ্ধ মরদেহ উদ্ধার করা হয় গতকাল বৃহস্পতিবার। পুলিশ জানিয়েছে, দুজন মিলে তরুণীকে ধর্ষণ করে খুন করার পর আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হয়। স্কুটারের টায়ার ফেটে যাওয়ায় ওই তরুণী চিকিৎসক যাদের সাহায্য চেয়েছিলেন তারাই তাকে হত্যা করেছে। পুলিশ অভিযুক্ত দুই ট্রাকচালককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

কলাকাতার দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ তেলেঙ্গানার রাজধানী হায়দরাবাদের অদূরে। শাদনগর নামক এলাকা দিয়ে স্কুটারে করে যাচ্ছিলেন ওই তরুনী চিকিসৎক। মাঝ রাস্তায় স্কুটারের টায়ার ফেটে গেলে তিনি অভিযুক্ত ওই দুই ট্রাকচালকের কাছে সাহায্য চেয়েছিলেন।

প্রাথমিক তদন্ত শেষে স্থানীয় পুলিশ বলেছে, ধর্ষণের শিকার ২২ বছর বয়সী ওই তরুণী পশু চিকিৎসককে গতকাল হায়দরাবাদের অদূরের মফস্বল এলাকা শামশাবাদের তন্দুপল্লি টোল প্লাজার কাছে খুন করা হয়। তারপর ২৫ কিলোমিটার দূরে শাদনগরর নামক এলাকার চাতানপল্লি সেতুর কাছে তরুণীর মরদেহ পুড়িয়ে ফেলে ধর্ষকরা।

বাড়ি থেকে গত বুধবার পশু হাসপাতালে যান ওই তরুণী। সন্ধ্যায় সেখান থেকে ফিরে টোল প্লাজার কাছে তার স্কুটি দাঁড় করিয়ে ক্যাব নিয়ে গোচিবাওলিতে এক চিকিৎসকের সঙ্গে দেখা করতে যান। রাত নয়টায় টোল প্লাজায় ফিরে দেখেন তার স্কুটির টায়ার ফেটে গেছে। তখন দুই ট্রাকচালক তাকে সাহায্যের আশ্বাস দেন।

তরুণী যে টোল প্লাজার কাছে গাড়ি রেখেছিলেন সেখান থেকে তার জুতা, জামাকাপড় ও একটি মদের বোতল উদ্ধার করেছে পুলিশ। টোল প্লাজার কাছে একটি দোকানের মালিক বলেছেন, সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ওই তরুণী তার অচল স্কুটি নিয়ে আসেন দোকানে। তখন তিনি জানতে পারেন স্কুটিটির টায়া ফেটে গেছে।

তিনি আরও বলেন, পৌনে দশটা নাগাদ ওই তরুণীকে ফোনে তার বোনের সঙ্গে কথা বলতে শুনেছেন তিনি। তিনি তার বোনকে স্কুটির টায়ার ফেটে যাওয়ার কথা জানাচ্ছিলেন। তবে বোনকে তিনি এও বলেন, স্কুটিটা একটু দূরে সড়ানো হলেও তার আশপাশে দুই ট্রাকচালক ঘোরাফেরা করছে। তাকে এ সময় আতঙ্কিত দেখাচ্ছিল।

তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে, তরুণীর বোন পরামর্শ দিয়েছিলেন স্কুটি ছেড়ে টোল প্লাজার কাছে গিয়ে একটি ক্যাব ভাড়া করে বাড়ি ফিরতে। পরে যখন তরুণীর বোন তাকে আবার ফোন করেন, তখন তার মোবাইলটি বন্ধ ছিল। সকাল ১১টার দিকে তরুণীর পরিবার নিখোঁজ ডায়েরি করে।

সাইবারাবাদের পুলিশ কমিশনার ভি সি সজ্জনার জানিয়েছেন, টোল প্লাজার সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। ঘটনার পূর্নাহঙ্গ তদন্ত শেষে বোঝা যাবে, ঘটনাটি আসলে কি ছিল। আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। আপনাদের জানানো হবে।

এসএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]