ছয় মাস ধরে জেলে, কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রীকে চেনা দায়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:১১ এএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২০

গেল বছরের আগস্ট থেকে গৃহবন্দী জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ। সম্প্রতি তার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ওমরের সেই ছবি দেখে বিস্মিত হয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওমর আবদুল্লাহর ছবি টুইট করে মমতা লিখেছেন, ‘এই ছবিতে ওমরকে তো আমি চিনতেই পারিনি। তার জন্য দুঃখ হচ্ছে। দুর্ভাগ্যবশত আমাদের গণতান্ত্রিক দেশে এমন কিছু দেখতে হচ্ছে। এসব বন্ধ হবে কবে?’

২০১৯ সালের ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করার পর থেকে শতাধিক রাজনীতিবিদের মতো ওমর আবদুল্লাহকেও গৃহবন্দী করে কেন্দ্রীয় সরকার।

ওমর আবদুল্লাহর ওই ছবিতে টুইট করেছেন জম্মু-কাশ্মীরের আরেক সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতিও। ওমর আবদুল্লাহর মতো তিনিও গৃহবন্দী। তাই টুইটার অ্যাকাউন্টটি মেহবুবা মুফতির মেয়ে ইলতিজা মুফতি দেখভাল করেন।

টুইটে তিনি বলেছেন, ‘যারা ওমর আবদুল্লাহর বন্দিদশার বিরোধিতা করছিলেন ছবিটি তাদের জন্য। পরিবার ও প্রিয়জনের কাছ থেকে প্রায় ৬ মাস দূরে রাখার কারণে তার কী অবস্থা হয়েছে সেটি এই ছবি দেখেই বোঝা যাচ্ছে।’

ছবিতে আরও টুইট করেছেন সিপিআইএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। তিনি লিখেছেন, ‘একজন সাবেক মুখ্যমন্ত্রীকে কীভাবে কোনো অভিযোগ না থাকা সত্ত্বেও গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছে এই ছবি কেন্দ্রীয় সরকারের সে চিত্রই তুলে ধরে।’

গত ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মাধ্যমে জম্মু-কাশ্মীরের ওপর থেকে বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয়া হয়। তারপর থেকেই সেখানে কারফিউ জারি ছিল এবং মোবাইল, ল্যান্ড লাইন ও ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করে দেয়া হয়।

এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]