সাহেদ ও তার দুই সহযোগীর ১০ দিনের রিমান্ড চায় ডিবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৪৪ এএম, ১৬ জুলাই ২০২০

আলোচিত প্রতারক রিজেন্ট গ্রুপ ও রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদ করিম ওরফে মো. সাহেদের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ। একই সঙ্গে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদের প্রতারণা কাজের অন্যতম সহযোগী গ্রুপটির এমডি ও র‌্যাবের করা মামলার ২ নম্বর আসামি মাসুদ পারভেজ এবং সাহেদের আরেক অন্যতম সহযোগী তরিকুল ইসলাম ওরফে তারেক শিবলীরও ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিার (১৬ জুলাই) ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির তাদের রিমান্ড আবেদন করা হয়। ঢাকা মহানগর হাকিম মোহাম্মদ জসিমের আদালতে এ রিমান্ড শুনানি হবে।

এদিকে সাহেদ এবং মাসুদের রিমান্ড বাতিল চেয়ে আদালতে জামিন আবেদন করা হয়েছে। তাদের আইনজীবী নাজমুল হাসান এ আবেদন করেন।

এর আগে বুধবার (১৫ জুলাই) সাহেদকে সাতক্ষীরার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে এদিন সকাল ৯টার দিকে তাকে হেলিকপ্টারে করে সাতক্ষীরা থেকে ঢাকায় আনা হয়

এর আগে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান ও সাহেদের প্রতারণা কাজের অন্যতম সহযোগী গ্রুপটির এমডি ও র‌্যাবের করা মামলার ২ নম্বর আসামি মাসুদ পারভেজকে গাজীপুর থেকে গত ১৪ জুলাই গ্রেফতার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

এ ব্যাপারে র‌্যাব সদর দফতরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ জাগো নিউজকে বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টায় গাজীপুরের কাপাসিয়া থেকে র‌্যাবের একটি দল তাকে গ্রেফতার করে। দায়ের করা মামলায় রাতেই তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

এর আগে সাহেদের অন্যতম সহযোগী তরিকুল ইসলাম ওরফে তারেক শিবলীকে গ্রেফতার করা হয়। পরে ১০ জুলাই তাকে আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড চাইলে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করে আদালত

এদিকে করোনাভাইরাস পরীক্ষা না করে সার্টিফিকেট প্রদানসহ বিভিন্ন অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে র‌্যাবের দায়ের করা মামলার তদন্তভার ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশে (ডিবি) হস্তান্তর করা হয়েছে।

জেএ/এআর/এমএফ/পিআর

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]