৪৬ বছরেও ‘তরুণী’ কারিশমা, জানালেন সৌন্দর্যের রহস্য

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল ডেস্ক লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১০ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২১

বলিউড কুইন কারিশমা কাপুরের বয়স এখন ৪৬ এর কোঠায়। তবুও তাকে দেখলে মনে হবে তরুণী। বয়সের ছাপ যেন পড়তে নিষেধ! তার ত্বকে নেই বয়সের ছাপ, মুখে পড়েনি বলিরেখাও। তার ভক্তকূল জানতে আগ্রহী, এই বয়সেও করিশমার সৌন্দর্য্যের রহস্য কী?

প্রতিবারই নিজ সৌন্দর্য নিয়ে কথা বলেছেন করিশমা। ত্বকের যত্ন নিতে কয়েকটি নিয়ম তিনি সবসময় মেনে চলেন। সেগুলো খুবই সাধারণ টিপস; চলুন তবে জেনে নেয়া যাক-

>> পরিমাণ মতো পানি পান করেন কারিশমা। তিনি বলেন, শরীর সুস্থ রাখতে পানির বিকল্প নেই। পর্যাপ্ত পানি পান করার ফলে শরীর আর্দ্র থাকে। এজন্য ত্বকে বয়সের ছাপ পড়ে না। একইসঙ্গে ত্বকও ভালো থাকে ও টানটানভাব বজায় রাখে।

jagonews24

>> সবসময় সানস্ক্রিন ব্যবহার করেন কারিশমা। একাধিক সাক্ষাতকারে করিশমা কাপুর এই কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, সানস্ক্রিন ত্বকের জন্য যে, কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা আপনারা ভাবতেই পারবেন না। তাই আপনি যখনই বাইরে যাচ্ছেন; সেদিন রোদ না থাকলেও সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। ত্বককে সূর্যরশ্মি থেকে রক্ষা করা খুবই জরুরি।

jagonews24

>> যতটা সম্ভব ত্বককে বিশ্রাম দিতে হবে। আর অবশ্যই ঘুমানোর আগে মেকআপ পরিষ্কার করুন। কারিশমা কখনো ঘুমানোর আগে মেকআপ তুলতে ভুলেন না। এরপর একটি অয়েল বেসড সিরামও তিনি ত্বকে ব্যবহার করেন।

>> ত্বক ভালো রাখতে হলে এর যত্ন নেয়ার বিকল্প নেই। কারিশমা মেনে চলেন তার স্কিন কেয়ার রুটিন। খুব সাধারণ কয়েকটি পদ্ধতি মেনে চললেই হয়। এই ধরুন- স্ক্রাবিং, ফেসপ্যাক ব্যবহার, ফেসিয়াল ইত্যাদি। সেই সঙ্গে আপনার ত্বকে ভালো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে।

jagonews24

>> প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে রূপচর্চা করেন কারিশমা। তার মতে, কেমিকেলযুক্ত পণ্য তাৎক্ষণিকভাবে ভালো ফলাফল দিলেও পরবর্তীতে ত্বক নষ্ট করে দেয়। এজন্য যতটা সম্ভব ভালো প্রসাধনীর ব্যবহার জরুরি। আর দরকার না হলে প্রসাধনী কম ব্যবহার করাই ভালো।

জেএমএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]