চর্যাপদ সাহিত্য একাডেমির ‘বই উপহার মাস’

সাহিত্য ডেস্ক সাহিত্য ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১৭ পিএম, ০২ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেপ্টেম্বরকে ‘বই উপহার মাস’ ঘোষণা করেছে চর্যাপদ সাহিত্য একাডেমি। ‘বই কখনও হয় না পর, বইয়ের সঙ্গে বাঁধব ঘর’ এ স্লোগানে মাসজুড়ে চলবে বই উপহার কর্মসূচি। পথে-ঘাটে, অফিস-আদালতে, যানবাহনে চলবে বই উপহার উৎসবের নান্দনিক আয়োজন।

গত ১ সেপ্টেম্বর বিকেলে চাঁদপুরের বড় স্টেশনের রক্তধারা ভাস্কর্যের সামনে ফিতা কেটে বই উপহার মাস উদ্বোধন করেন চর্যাপদ একাডেমির মহাপরিচালক রফিকুজ্জামান রণি। কর্মসূচি চলবে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

এ সময় তিনি বলেন, ‘আমরা প্রতিদিন কমপক্ষে একটি করে বই উপহার দিতে চাই। সাধ্যে কুলালে আরও বাড়াব। সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্রশাসনিক কর্মকর্তা, রাজনীতিবিদ, গণমাধ্যমকর্মী, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বদের উপহার দেওয়ার চেষ্টা করব। শুধু এক মাস নয়, সারাবছর বই উপহার দিতে চাই।’

একাডেমির উপমহাপরিচালক দুখাই মুহাম্মাদের সভাপতিত্বে সহযোগী পরিচালক জয়ন্তী ভৌমিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অ্যাডভোকেট ইমাম হোসাইন টিটু।

বিকেল সাড়ে ৫টায় আনুষ্ঠানিকভাবে বই উপহার মাস ঘোষণা দেন চর্যাপদ একাডেমির পরিচালক শিউলী মজুমদার। তিনি বলেন, ‘বই পাঠের মাধ্যমে জাতি আলোকিত হয়। সে কারণে আমরা এমন উদ্যোগ নিয়েছি। এ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৩ হাজার বই উপহার দিয়েছে চর্যাপদ সাহিত্য একাডেমি।’

অনুষ্ঠানের সভাপতি দুখাই মুহাম্মাদ বলেন, ‘মানুষকে বইমুখী করতে আমাদের এ আয়োজন। আমরা চাই, আগামী প্রজন্ম বই পড়ে সচেতন হয়ে মাদক, জঙ্গিবাদ ও বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াক।’

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সহকারী পরিচালক ফেরারী প্রিন্স, নির্বাহী পরিচালক আইরিন সুলতানা লিমা, প্রচার ও প্রকাশনা পরিচালক নাজমুল ইসলাম, আর্কাইভ ও নথিব্যবস্থাপনা পরিচালক আল আমিন সানি, সদস্য শ্রাবনী মিম, মিথিলা, রাহাত, আবু সুফিয়ান প্রমুখ।

শেষে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত ভ্রমণপিপাসু মানুষের হাতে বই তুলে দেওয়া হয়।

এসইউ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]