সুজন হাজংয়ের তিনটি কবিতা

সাহিত্য ডেস্ক সাহিত্য ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:০৭ পিএম, ১১ জুন ২০১৯

সিমসাং নদীর কাছে

সিমসাং নদীর কাছে জীবনের গল্প বলা হয়নি
মেঘালয়ের পাহাড় ঘেঁষে মেঘের লুকোচুরি দেখে
দু’চোখ জুড়ায়...

অনেক দিন পর কৈশোরের সেই রুদ্রমাখা স্বপ্নীল দিনগুলোর কথা হঠাৎ মনে পড়লো!
আহা কী অপরূপ সবুজ ছায়াঘেরা
ছোট ছোট দীপপুঞ্জের মতো নদীর পাড়ে মানুষের বসতি!

তবুও আকাশ নীলিমায় তোমার
চন্দ্রমুখী সেই মায়াবী হাসিটি দূর থেকে দেখা যায়!
কবে, কখন তুমি মিশে যাবে আমার বুকে সিমসাং নদীর
ঢেউয়ে ঢেউয়ে...
জানি না...

****

হৃদয়পটে

তোমার মন কবিতার মতো দিগন্তজুড়ে স্বপ্ন বুনে যায়
আর আমি সেই স্বপ্নের চাষাবাদ করি হৃদয়পটে।

বোঝ না কেন ঘাসফড়িং নীল আকাশ ছুঁতে চায়
মেঘের ওপারে ভালোবাসার বসতি গড়তে চায়।

জানি তুমি মেঘ হবে না
আকাশ হবে না।

তবুও তোমাকে ছুঁয়ে যাব
অনন্তকাল...

****

ইনকা সভ্যতার মতো রহস্যময় কবিতা

মায়া সভ্যতার ধ্বংসের ইতিহাস খুঁজতে গিয়ে আমি তোমাকে খুঁজে পেয়েছিলাম,
পেয়েছিলাম প্রাচীন স্থাপত্যশিল্পের মতো তোমার মন!

আটলান্টিক মহাসাগরের বুকে বারমুডা ট্রায়েঙ্গেলে তোমার সেই মন হারিয়ে গেছে!
আমি আবার খুঁজি তোমার সেই হারিয়ে যাওয়া মনটাকে
আমার প্রিয় ম্যানগ্রোভ ফরেস্টের ভেতর!

আমি তোমার জন্য অযোধ্যার রাম হতে চেয়েছিলাম, হতে পারিনি!
অথচ তুমি সেচ্ছায় নির্বাসনে গেলে, কবে ফিরে আসবে জানি না, তুমি আজ দূর দ্বীপবাসিনী।

তোমার ভালোবাসা ছিল ইনকা সভ্যতার মতো রহস্যময়!
দৃশ্য অদৃশ্যের পটভূমিতে
আজ আমি তোমার জন্য দাঁড়িয়ে আছি!
কখন এসে তুমি নীল জোছনার মতো আমার কাছে দু’হাত বাড়াবে!

কখন এসে তুমি গভীর ভালোবেসে আমার বুকে মাথা রাখবে, জানি না।

আমি দশ হাজার বছর তোমার জন্য প্রতীক্ষায় থাকব।

এসইউ/এমএস