ইসির শর্ত মানার তথ্য জানায়নি অর্ধেক দল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৩৭ পিএম, ২১ নভেম্বর ২০১৭

নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল হিসেবে যেসব শর্ত রয়েছে তা দলগুলো পালন করছে কি-না জানতে চেয়েছিল নির্বাচন কমিশন (ইসি)। কিন্তু অর্ধেক দলের কাছ থেকে ইসি কোনো উত্তর পায়নি। ১ নভেম্বর দলগুলোর কাছে পাঠানো চিঠিতে ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে ইসিকে এ বিষয়ে জানানোর জন্য বলা হয়। সে হিসেবে মঙ্গলবার ছিল ইসির দেয়া সময়ের শেষ দিন।

তবে নির্ধারিত সময়ে জবাব দিতে না পারায় কমিশনের কাছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি এ তিনটি দল সময় চেয়েছে।

এ বিষয়ে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ মঙ্গলবার জাগো নিউজকে বলেন, তিনটি দল জবাব দেয়ার জন্য সময় চেয়েছে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার পর্যন্ত জাকের পার্টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), ইসলামী ঐক্যজোট, জাতীয় পার্টি (জেপি), লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিটি), গণফ্রন্ট, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি), বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ), কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ, বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (বাংলাদেশ ন্যাপ), খেলাফত মজলিস, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ ও বিকল্পধারা বাংলাদেশসহ প্রায় ২০টি দলের জবাব ইসির সংশ্লিষ্ট শাখায় পৌঁছেছে।

শর্ত প্রতিপালনে ব্যর্থ হলে দলের নিবন্ধন বাতিলের বিষয়ে সতর্ক করে দিয়ে ১ নভেম্বর ৪০টি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলকে চিঠি দেয় ইসি, যাতে ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে জবাব দেয়ার কথা বলা হয়।

ইসি সূত্র জানায়, দলগুলো শর্তপূরণ করেই নিবন্ধিত হয়েছিল। তাদের বেশকিছু বিষয় প্রতিপালনের বাধ্যবাধকতাও রয়েছে। এজন্য ইসির ঘোষিত কর্মপরিকল্পনা মেনে সর্বশেষ অবস্থা জানাতে নিবন্ধিত দলগুলোকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

ইসির রোডম্যাপে বলা হয়েছে- নিবন্ধিত দলগুলো বিধি-বিধানের আলোকে পরিচালিত হচ্ছে কি-না, খতিয়ে দেখার আইনানুগ দায় ইসির রয়েছে। তারা শর্ত যথাযথভাবে প্রতিপালন করছে কি-না তা খতিয়ে দেখতে সিদ্ধান্ত হয়েছে। যাতে সব নিবন্ধিত দল একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে পারে।

এইচএস/জেডএ/জেআইএম

সময় চেয়েছে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি।

আপনার মতামত লিখুন :