খালেদার বক্তব্যকে পাগলের প্রলাপ বললেন প্রধানমন্ত্রী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৫৯ পিএম, ১০ জানুয়ারি ২০১৮

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার পদ্মা সেতু নিয়ে বক্তব্যকে পাগলের প্রলাপ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি (খালেদা জিয়া) বলেছেন জোড়াতালি দিয়ে পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হচ্ছে। উনার দলের লোকজন যেন ওই সেতুতে না ওঠে তাও নিষেধ করেছেন। একটি সেতু তো জোড়া দিয়েই নির্মিত হয়। এছাড়া হয় না। তিনি জোড়াতালি বলতে কী বোঝালেন সেটা আমার বোধগম্য না। তবে বাংলাদেশে তো একটি প্রচলিত কথা আছে–‘পাগলে কী না কয়, ছাগলে কী না খায়।’

বুধবার জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি ফজিলাতুনসেনা বাপ্পির সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

সম্প্রতি খালেদা জিয়া রাজধানীর এক অনুষ্ঠানে বলেন, পদ্মা সেতু জোড়াতালি দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে। সেই সেতুতে কাউকে না ওঠার জন্য বলেন তিনি। সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে বাপ্পি এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্য জানতে চান।

এর জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এ পদ্মা সেতু আমরা প্রথমবার সরকার গঠনের সময় চিন্তা করেছিলাম। আমি সেই সময় জাপান সফরের করে তাদের পদ্মা সেতু নির্মাণে সহযোগিতার কথা বলি। আমরা জাপান সরকারের কাছে পদ্মা ও রূপসা সেতু নির্মাণ করতে সহায়তা চেয়েছিলাম। সেই হিসেবে তারা সমীক্ষাও করেন। আর সমীক্ষার পর যে জায়গাটা তারা নির্বাচন করেন সেখানে আমি ভিত্তিপ্রস্তুর স্থাপন করি। এরপর ২০০১ এ বিএনপি সরকার ক্ষমতার আসার পর সেই সেতুর নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়। ফলে সেই সেতু আর তখন নির্মিত হয়নি।’

‘দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর আমরা পদ্মা সেতুর কাজ শুরু করি। শুরুতেই একটা হোঁচট খাই। যেখানে বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির অভিযোগ আনে। আমি এটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছিলাম এরকম দুর্নীতি হয় নাই। সেটা আজকে প্রমাণিত। কানাডার আদালত বলে দিয়েছে কোনো দুর্নীতি হয় নাই। বিশ্বব্যাংক অর্থ প্রত্যাহার করে নেয়ার পর আমরা নিজস্ব অর্থায়নে এর কাজ শুরু করে দিয়েছি। এ সেতু নিয়ে বিএনপির নেত্রী বক্তব্য দিয়েছে। এটা নিয়ে আমি কী মন্তব্য করব’- প্রশ্ন রাখেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, আমার মন্তব্য একটায় এ ধরনের পাগলের কথায় বেশি মনোযোগ না দেয়া ভালো। কারণ কোনো সুস্থ মানুষ এ ধরনের কথা বলতে পারে না।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতুর সঙ্গে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের ভাগ্য জড়িত। এ কাজগুলো জনগণের স্বার্থে করা। এ সেতু হলে জিডিপি ১ শতাংশ বেড়ে যাবে। অথচ তিনি বলে দিলেন তার দলের কেউ যেন এ সেতুতে না ওঠে। আমি জানি না বিএনপির নেতা-নেত্রীরা যারা তার এ কথা শুনেছেন তারা সত্যিই পদ্মা সেতু হওয়ার পর উঠবেন কি-না। যদি তারা ওঠে তখন এলাকার লোকজন নজরদারি করতে পারবে সত্যিই তারা পদ্মা সেতুতে ওঠল কি-না সেটা আমরা দেখব। আমার মনে হয় এটাকে পাগলের প্রলাপ হিসেবেই নিয়ে নেয়া ভালো।

এইচএস/জেডএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :