১০ বছর আগের পুলিশ আর এখনকার পুলিশ এক না

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৫৬ এএম, ০৭ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ০১:২১ এএম, ০৭ এপ্রিল ২০১৮
১০ বছর আগের পুলিশ আর এখনকার পুলিশ এক না

বিনিয়োগের পরিবেশ তৈরি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা উন্নয়নের পূর্বশর্ত উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, দেশের সব ক্ষেত্রে পুলিশ নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে। যে কারণে দেশে বিনিয়োগের পরিবেশে সৃষ্টি এবং অর্থনৈতিক উন্নয়ন হয়েছে। এর ফলে আজ আমরা উন্নয়নশীল দেশের কাতারে।

শুক্রবার রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইনে বাংলাদেশ পুলিশ এসোসিয়েশনের নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদের অভিষেক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ১০ বছর আগের পুলিশ আর এখনকার পুলিশ এক না। পুলিশকে নিয়ে আগে মানুষ বিরুপ মন্তব্য করত, কিন্তু এখন পুলিশকে মানুষ সাধুবাদ জানায়। আজ পুলিশ জনগণের বন্ধু হয়েছে। বঙ্গবন্ধু যে পুলিশের স্বপ্ন দেখেছিলেন পুলিশ আজ সেই জায়গায় গিয়েছে।

তিনি বলেন, পুলিশে বিনিয়োগ করলে দেশের জন্য মঙ্গল। কারণ পুলিশ দেশকে নিরাপদ রেখেছে বলেই আমরা অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে গিয়েছি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেশ, দেশের মানুষ নিরাপদ না থাকলে উন্নয়ন সম্ভব না। তাই বর্তমান সরকার পুলিশকে দেয়া সব সুযোগ-সুবিধাকে বিনিয়োগ হিসেবে বিবেচনা করে। পুলিশ বাহিনীর উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আমরা ইতোমধ্যে ৮০ হাজার পুলিশ সদস্য নিয়োগ দিয়েছি। ১০১টি পুরাতন থানার আধুনিকায়নে কাজ চলছে। এছাড়া ব্যারাক ও পুলিশ সদস্যদের থাকার জায়গা নির্মাণেরও কাজ চলছে।

jagonews24

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, থানার ওসিরা তাদের দায়িত্ব ঠিকভাবে পালন করলে সে এলাকা নিরাপদ থাকবে। পুলিশের দক্ষতা ও সক্ষমতা বৃদ্ধিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন। পুলিশ বাহিনী যাতে তাদের সবকিছু পায় তার জন্য তিনি নির্দেশনাও দিয়েছেন। এ সময় পুলিশ সদস্যদের তুলে ধরা বিভিন্ন দাবি সরকার বিবেচনা করছে বলেও তিনি জানান।

একই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, আমরা দেশ থেকে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসকে নির্মূল করতে সক্ষম হচ্ছি। বর্তমানে দেশে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে মাদক। তৃণমূল পর্যায়ের পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে আমরা মাদককেও জঙ্গিবাদের মতো মোকাবিলা করব।

এর আগে বাংলাদেশ পুলিশ এসোসিয়েশনের নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদের ১০১ জন সদস্যদের অভিষেক অনুষ্ঠিত হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল অভিষেক অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন। ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়াসহ পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন মতিঝিল থানার অফিসার ইনচার্জ ও সভাপতি বাংলাদেশ পুলিশ এসোসিয়েশন মোহাম্মদ ওমর ফারুক।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তেজগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ ও বাংলাদেশ পুলিশ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. মাজহারুল ইসলাম ও ১০১ সদস্যের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা। পুলিশ অ্যাসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির অভিষেক উপলক্ষে আয়োজন করা হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। পুলিশ অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠানে পারফর্ম করবেন ঢাকাই সিনেমার বেশ ক’জন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ও তারকা।

জেইউ/ওআর/এমআরএম