বসুন্ধরা সিটির ১৭ প্র‌তিষ্ঠান‌কে জ‌রিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:২১ পিএম, ২৯ মে ২০১৯

অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যপণ্য তৈ‌রি, বি‌দে‌শি পণ্যে আমদানিকারকের স্টিকার না থাকা এবং নকল কস‌মে‌টিকস বি‌ক্রির দা‌য়ে বসুন্ধরা সিটি মার্কেটের ১৭ প্র‌তিষ্ঠান‌কে তিন লাখ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করা হ‌য়ে‌ছে।

বুধবার রাজধানীর পান্থপ‌থে বসুন্ধরা সিটি মার্কেটের ফুড কোড, জু‌য়েলারি ও কসমেটিকসের দোকা‌নে অ‌ভিযান পরিচালনা ক‌রে এ জ‌রিমানা ক‌রে ভোক্তা অ‌ধিকার সংরক্ষণ অ‌ধিদফতর।

আরও পড়ুন >> অন্যদের ভাগ্য গণনা করেন, ভোক্তা অধিকার আসবে জানতেন না

ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল জব্বার মণ্ডল, সহকারী পরিচালক মো. মাসুম আরিফিন ও আফরোজা রহমান। অভিযানে উপস্থিত ছিলেন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ।

আরও পড়ুন >> নকল কসমেটিক্স, বিডি বাজেট বিউটি বন্ধ

মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার জা‌গো‌ নিউজ‌কে জানান, বসুন্ধরা সিটি মার্কেটের ফুড কোড, জু‌য়েলারি ও কসমেটিকসের দোকা‌নে বি‌শেষ অ‌ভিযান করা হয়। এ সময় পণ্যের মোড়কে উৎপাদন ও মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ, খুচরা মূল্য ও আমদানিকারকের স্টিকার না থাকায় বার্মিজ জেমসকে ১০ হাজার, হ্যালো ফ্রাইড চিকেনকে ২০ হাজার, ইন্ডিয়ান শাহী মসলাকে ২০ হাজার, ম্যাক্স কসমেটিকসকে ২০ হাজার; অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য প্রক্রিয়াকরণের অপরাধে কড়াই গোস্তকে ৫০ হাজার, ইন্ডিয়ান স্পাইসিকে ৩০ হাজার, স্পাইসি ফ্রাইড চিকেনকে ৩০ হাজার, কোরিয়ান কিউজিনকে ৩০ হাজার, দোসা কিংকে ২০ হাজার, ইন্ডিয়ান দরবারকে ২০ হাজার, শর্মা হাউসকে ৩০ হাজার, বিএফসিকে ২০ হাজার; মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করার অপরাধে মডার্ন পারল প্যালেসকে ১০ হাজার, শেষ দর্শন আজমেরী জেমসকে ৫০ হাজার, সঙ্গিনী ডায়মন্ডকে ১০ হাজার; প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী যথাযথ সেবা প্রদান না করার অপরাধে অলংকার নিকেতনকে ১০ হাজার এবং নির্ধারিত মূল্যের অধিক মূল্যে পণ্য বিক্রয়ের অপরাধে ঢাকায় এক‌টি প্র‌তিষ্ঠান‌কে ২০ হাজার টাকাসহ সর্বমোট তিন লাখ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

আরও পড়ুন >> অনুমোদনহীন পণ্য বিক্রির অপরাধে ৮ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা

এছাড়া নামিদামি সব ব্র্যান্ডের নামে অবৈধ নকল বিদেশি কসমেটিকস বিক্রি করার অপরাধে বিবিবি কসমেটিকস (বিডি বাজেট বিউটি) সাময়িকভাবে বন্ধ করা হয়। তদারকিতে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ও বসুন্ধরা কর্তৃপক্ষ সার্বিক সহায়তা প্রদান করে।

এসআই/বিএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]