৪ শতাংশ সুদে কৃষিঋণ দেবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২০ পিএম, ২৭ জুন ২০১৯

শস্য উৎপাদনে সরকার চার শতাংশ সুদে কৃষিঋণ দেবে বলে জানিয়েছেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য।

বৃহস্পতিবার (২৬ জুন) জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে নওগাঁ-৬ আসনের সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলমের টেবিলে উত্থাপিত এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সমবায়ী কৃষকদের সিঙ্গেল ডিজিটে সুদ হারে কৃষিঋণ প্রদানে প্রধানমন্ত্রীর দিক নির্দেশনা বাস্তবায়নে বিআরডিবির মাধ্যমে ‘দারিদ্র বিমোচনের লক্ষ্যে পুষ্টি সমৃদ্ধ উচ্চ মূল্যের অপ্রধান শস্য উৎপাদন ও বাজারজাতকরণ কর্মসূচি’ শীর্ষক প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়ন করা হবে। এ প্রকল্পের আওতায় কৃষকরা অপ্রধান শস্য উৎপাদনে চার শতাংশ সুদে ঋণ নিতে পারবেন।

এছাড়া ‘পল্লী উৎপাদন বৃদ্ধিকল্পে বিআরডিবির অদম্য অভিযাত্রা প্রকল্প’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ৮ শতাংশ সুদে সমবায়ী ঋণ প্রদানের প্রস্তাব করা হয়েছে। এ সময় বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ডের (বিআরডিবি) একটি প্রকল্পের আওতায় এ ঋণ দেয়া হবে এবং শিগগিরই এ প্রকল্প বাস্তবায়ন হবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

ঢাকা-১১ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম রহমতুল্লাহর প্রশ্নের জবাবে স্বপন ভট্টাচার্য জানান, বর্তমানে কৃষক সমবায় সমিতির সংখ্যা ৫৪ হাজার ২০২টি। এর সদস্য সংখ্যা ১৭ লাখ ৩০ হাজার ৮৪৩। এ সব সমিতির মূলধনের পরিমাণ ১৭৭ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। এরমধ্যে শেয়ার ৬৬ কোটি ৯৭ লাখ ৯৫ হাজার ও সঞ্চয় ১১০ কোটি ৭৭ লাখ ৫ হাজার।

তিনি জানান, সমবায় সমিতির মাধ্যমে বিভিন্ন কৃষিভিত্তিক কর্মকাণ্ডের বিপরীতে তিন হাজার ৭৩৪ কোটি ৭০ লাখ ৫৪ লাখ টাকা ঋণ প্রদান, সেচ কার্যক্রমে ১৮ হাজার ৩৬০টি গভীর নলকূপ, ৪৪ হাজার ৫২৩টি অগভীর নলকূপ, ২৭ হাজার ৩০০টি হস্তচালিত পাম্প ও ১৯ হাজার ৪০৫টি শক্তিচালিত পাম্প বিতরণ করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম-৪ আসনের সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের প্রশ্নের জবাবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম জানান, ‘সবার জন্য নিরাপদ পানি’ সরকারের এই ভিশন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে রাজধানীর সমস্ত বস্তিবাসীদের আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে বৈধ ও নিরাপদ পানি সরবরাহ ব্যবস্থার আওতায় আনা হবে।

কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আফজাল হোসেনের প্রশ্নের জবাবে তাজুল ইসলাম জানান, শতভাগ স্যানিটেশন কভারেজের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমানে ৯৯ শতাংশ জনগণ মৌলিক স্যানিটেশনের অন্তর্ভুক্ত। মৌলিক স্যানিটেশনের দিক থেকে সার্কভূক্ত দেশের মধ্যে বাংলাদেশ দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে।

এইউএ/এএইচ/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :