মিরপুর বিআরটিএ অফিসে ১৭ দালালের জেল-জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৩২ পিএম, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) মিরপুর কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে সেবাগ্রহীতাদের অর্থ নিয়ে কাজের নামে হয়রানি ও হেনস্তার অভিযোগে ২০ দালালকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। তাদের মধ্যে ১৭ জনের জেল-জরিমানা করা হয়েছে। বাকি তিনজনকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

আটকরা হলেন, রাফি হাওলাদার (২০), খাইরুল ইসলাম (৩২), কবির (৩৮) উজ্জ্বল হোসেন (২৭), খোকন মোল্লা (৪০), ইমরান (২৫), শিপন (২৮), শাহজাহান আলী (৪৭), হাফিজুর রহমান (৪২), মো. মানিক (৫০), সুজন মিয়া (২০), মারুফ বিল্লাহ (২৩), অভিজিৎ মণ্ডল (২৭), ফরহাদ হোসেন রাজন (৩৬), রতন মিয়া (৪৫), সোহেল মিয়া (২৬), জাকির হোসেন (৩৮), অনিক খান (২৩), আলামিন (৩৪) ও ইসমাঈল (২৭)।

বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত মিরপুর কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে র‌্যাব-৪ এর একটি দল।

rab1.jpg

পরে সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান। আটক ২০ দালালের মধ্যে ১৪ জনকে দুই মাস করে কারাদণ্ড, তিন জনকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা এবং বাকি তিনজনকে প্রথমবারের মতো মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেন আনিসুর রহমানের আদালত।

র‌্যাব-৪-এর ‘ল’ অফিসার সিনিয়র এএসপি আক্তারুজ্জামান জাগো নিউজকে জানান, দালাল চক্রটি বিআরটিএ অফিসে সেবা নিতে যাওয়া মানুষকে নানাভাবে হয়রানি করে আসছিল। তারা ভুয়া ড্রাইভিং লাইসেন্স ও লাইসেন্স নবায়ন, ফিটনেস সার্টিফিকেট তৈরি করে প্রতারণা করতো। এজন্য সেবাগ্রহীতার কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা নিতো। অভিযোগ পাওয়ার র‌্যাব-৪ এর একটি দল তদন্ত করে প্রমাণ পাওয়ায় অভিযানে নামে।

জেইউ/এএইচ/এমএস