৪ ইউনিটের পতাকা উত্তোলন করলেন সেনাপ্রধান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:১৪ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০২২

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাত পদাতিক ডিভিশনের তত্ত্বাবধানে ৩৫ বীর (সাপোর্ট ব্যাটালিয়ন), ৫২ স্বতন্ত্র এমএলআরএস ব্যাটরি আর্টিলারি, ৮৫ ফিল্ড অ্যাম্বুলেন্স এবং ১৬৩ ফিল্ড ওয়ার্কশপ কোম্পানি ইএমই’র পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (১৭ অক্টোবর) বরিশালে শেখ হাসিনা সেনানিবাসে পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

এসময় সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) ৭ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার বরিশাল এরিয়া মেজর জেনারেল আবদুল কাইয়ুম মোল্লা, অ্যাডজুটেন্ট জেনারেল মেজর জেনারেল মো. মোশফেকুর রহমান এবং জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) ১৯ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার ঘাটাইল এরিয়া মেজর জেনারেল নকিব আহমদ চৌধুরী নবগঠিত ইউনিটগুলোর পতাকা উত্তোলন করেন।

jagonews24

পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠানে সেনাপ্রধান তার বক্তব্যে সেনাবাহিনীর নতুন ইউনিটগুলোর সব সদস্যকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। তিনি গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে এবং শ্রদ্ধা জানান অগণিত বীর শহিদ ও সাহসী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের, যাদের আত্মত্যাগে অর্জিত হয়েছে কাঙ্ক্ষিত স্বাধীনতা।

১৯৭৪ সালে বঙ্গবন্ধু সর্বপ্রথম বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা নীতি প্রণয়ন করেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তার সরকার বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। সেই উন্নয়নের পথ ধরে আজকের এ পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠিত হলো এবং একইসঙ্গে বাস্তবায়িত হলো সামরিক বাহিনীর উন্নয়নের রূপকল্প ‘ফোর্সেস গোল-২০৩০’ এর আরেকটি ধাপ।

সেনাবাহিনীর পরিধি বৃদ্ধি ও আধুনিকায়নে প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগের জন্য তাকে ধন্যবাদ জানান সেনাপ্রধান।

এরপর তিনি সাত পদাতিক ডিভিশনের একটি প্রশিক্ষণ মাঠে উপস্থিত সব পদবির সেনা কর্মকর্তা, জেসিও ও অন্যান্য পদবির সেনা সদস্যদের উদ্দেশে দরবার নেন এবং মাল্টিপারপাস শেডে আয়োজিত প্রীতিভোজে অংশ নেন। অনুষ্ঠানে ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তা, অসামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ ও বিভিন্ন পদবির সেনাসদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

টিটি/এমকেআর/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।