সংসদ নির্বাচনে সেনা চায় কল্যাণ পার্টি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২০ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০৩:২৫ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭
সংসদ নির্বাচনে সেনা চায় কল্যাণ পার্টি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনা মোতায়েন ও সহায়ক সরকারের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি। বিএনপি জোটের এ দলটির নেতাদের দাবি, সেনাবাহিনীর প্রতি জনসাধারণের আস্থা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন ভবনের সম্মেলন কক্ষে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপে অংশ নিয়ে এ দাবি জানায় দলটি। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুন হুদার নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে অন্য কমিশনাররা উপস্থিত ছিলেন। দলটির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বীরপ্রতীকের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের প্রতিনিধি দল সংলাপে অংশ নেয়।

কল্যাণ পার্টি তাদের দাবিগুলোর মধ্যে ৮টি সুপারিশ করেছে এবং ৪টি বিষয়ে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে বলে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের জানান দলটির সভাপতি।

 Kollan-Party-2

দলটির অন্য দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য ইসির সক্ষমতা বৃদ্ধি, প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটাধিকার দেয়া, ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা প্রদান, সব দলের সঙ্গে আলোচনা করে নির্বাচনী আসনের সীমানা পুননির্ধারণ এবং জোটের প্রার্থীরা ওই জোটের শরিক দলের যেকোনো প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করার সুযোগ দেয়া।

বৈঠক শেষে দলটির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম জানান, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কমপক্ষে ৮ দিন আগে আমরা সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছি। বর্তমান আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী যেকোনো কারণে হোক দলীয়করণ হয়ে গেছে। এ ক্ষেত্রে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হলে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে বলে জনগণ বিশ্বাস করে।

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে অংশীজনদের সঙ্গে সংলাপ শুরু করেছে ইসি। এরই ধারাবাহিকতায় এ বৈঠক। গত ৩১ জুলাই সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, ১৬ ও ১৭ আগস্ট গণমাধ্যম প্রতিনিধির সঙ্গে মতবিনিময় করেছে ইসি। এ ছাড়া ২৪ আগস্ট থেকে দলগুলোর সঙ্গে মতবিনিময় শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত ৯টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ করল ইসি।

উল্লেখ্য, আজ (বৃহস্পতিবার) বিকেল ৩টায় ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সঙ্গে সংলাপ করবে ইসি।

এইচএস/আরএস/জেআইএম