‘সন্ত্রাস-দুর্নীতি-মাদক প্রতিরোধে চাই রাজনৈতিক অঙ্গীকার’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

দেশ থেকে সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও মাদক নির্মূলের জন্য রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও ধর্মীয় নেতৃত্বকে অঙ্গীকারবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ লেবার পার্টি আয়োজিত ‘সন্ত্রাস, মাদক ও দুর্নীতি প্রতিরোধে রাজনীতিবিদদের করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ আহ্বান জানান।

বি. চৌধুরী বলেন, গত ১০ বছরে দেশ অনেক এগিয়েছে, ইতিবাচক উন্নয়ন হয়েছে। সাড়ে ৫ ডলারের মাথাপছিু আয় হয়েছে ১৭-১৮শ’ ডলার। ১০ বছরের যে অর্জন তা পাকিস্তানকেও ছাড়িয়ে গেছে। খাদ্য উৎপাদনও বেড়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার ম্যাজিকাল উন্নতি হয়েছে। নিজেদের টাকায় আমরা পদ্মা সেতু করতে পারছি।

তিনি বলেন, এত উন্নয়ন হওয়া সত্ত্বেও দুর্নীতি, মাদক এবং সন্ত্রাস আমাদের সব অর্জনকে ব্যর্থ করে দিচ্ছে। সর্বস্তরে দুর্নীতি ছড়িয়ে পড়েছে। যা সমাজের ওপর বিশাল প্রভাব ফেলেছে। দুর্নীতি ৫০ ভাগ কমানো গেলে আমাদের জিডিপি ৯-এ নিয়ে আসা মোটেও অসম্ভব নয়। জিডিপির বিশাল অংশ দুর্নীতি খেয়ে ফেলছে।

সাবেক এই রাষ্ট্রপতি দুর্নীতিবাজদের রাষ্ট্রদ্রোহী উল্লেখ করে বলেন, দুর্নীতি দমন শুধু দুদককে দিয়ে হবে না। এর জন্য চাই রাজনৈতিক, সামাজিক ও ধর্মীয় নেতৃত্বের অঙ্গীকার। দুর্নীতি প্রতিরোধে তিনি মা-বোনদেরও জাগিয়ে তোলার আহ্বান জানান।

সরকারেকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, টোটাল পলিটিক্যাল কমিটমেন্ট নিয়ে নামুন, আমরা আপনাদের পাশে আছি।

চকবাজারের অগ্নিকাণ্ডে বিপুল মানুষের প্রাণহানীর জন্য দুঃখ প্রকাশ করে বি. চৌধুরী বলেন, দেশে ব্যবহৃত বা মজুতে কেমিকেল ও বিস্ফোরক দ্রব্যের হিসাব চাই। যেখানে লোক বসবাস করে সেখানে এসব মজুত রাখা যাবে না। এ ব্যাপারে সরকারকে অবিলম্বে ব্যবস্থা নিতে হবে।

লেবার পার্টির (একাংশ) চেয়ারম্যান হামদুল্লাহ আল মেহেদীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ লিবারেল ডেমোক্রেটিক পাটির (বিএলডিপি) সভাপতি নাজিম উদ্দিন আল আজাদ, বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক এমপি মজহারুল হক শাহ চৌধুরী, বিকল্পধারার সহ সভাপতি এনায়েত কবীর, বাংলাদেশ জনদলের (বিজিডি) চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান জয় চৌধুরী, বাংলাদেশ গণ সংস্কৃতি দলের (বাগসদ) সভাপতি সরদার শামস আল মামুন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া, লেবার পার্টির মহাসচিব আবদুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ।

এইউএ/এমবিআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :