সরকার জনগণের দুঃখ-দুর্দশা সম্পর্কে উদাসীন

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৬:৩৭ পিএম, ২৫ মে ২০১৯

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ভোটবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা জবরদখলকারী অবৈধ সরকার জনগণের দুঃখ-দুর্দশা সম্পর্কে উদাসীন। নিজেদের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার জন্য গণতন্ত্রকে তারা ভেজাল পণ্যে পরিণত করেছে। ঘুষ, দুর্নীতি, লুটপাট, চাঁদাবাজীকে স্থায়ী রূপ দিয়েছে। দলীয় মাস্তান বাহিনীসহ বিভিন্ন পেটোয়া বাহিনী দিয়ে সব প্রতিষ্ঠান, সংগঠনকে দলীয় প্রতিষ্ঠানে পরিণত করেছে।

ভেজালমুক্ত খাদ্যের দাবিতে শনিবার (২৫ মে) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ঢাকা মহানগর জেএসডি আয়োজিত বিক্ষোভ-সমাবেশে তারা এমন কথা বলেন।

ঢাকা মহানগর জেএসডির যুগ্ম সমন্বয়ক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারীর সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন অ্যাড. সৈয়দ বেলায়েত হোসেন বেলাল, মোশারফ হোসেন, মিজান-উর-রশিদ চৌধুরী, আবদুল্লাহ আল তারেক, অ্যাড. সৈয়দা ফাতেমা হেনা, নুরুল আবছার, মোশাররফ হোসেন, তৌফিক উজ জামান পীরাচা প্রমুখ।

নেতারা বলেন, সরকারের অবহেলার কারণে সারাদেশে হত্যা, ধর্ষণ, শিশু ধর্ষণ, নির্যাতন প্রতিদিন বেড়েই চলছে। কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ধানের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে হাহাকার করছেন। ধানচাষ বন্ধ করে দেয়ার কথা চিন্তা করছেন।

জেএসডি নেতারা অভিযোগ করেন সরকার ও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের প্রশ্রয়ে অসাধু ব্যবসায়ীরা লাগাতারভাবে খাদ্যে ভেজাল মিশিয়ে গোটা জাতিকে রুণগ, পঙ্গু, মেধাশূন্য করে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। ভেজালের দৌরাত্ম্য এতই বেশি যে, জীবন রক্ষাকারী ওষুধ থেকে শুরু করে শিশুখাদ্য কিংবা রাজনীতি কোনোটাই আজ আর ভেজালমুক্ত নয়। এ অব্যবস্থা আর চলতে দেয়া যায় না।

তারা বলেন, ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলনের মাধ্যমে সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা ফিরিয়ে আনাসহ দেশকে ভেজাল খাদ্য ও ভেজাল রাজনীতি থেকে মুক্ত করতে হবে। রাজনীতির গুণগত পরিবর্তনের জন্য প্রকৃত গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থা প্রবর্তনের লক্ষ্যে শ্রমজীবী-কর্মজীবী-পেশাজীবী জনগণের অধিকার, ক্ষমতা ও কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে শামিল হওয়ার জন্য সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহ্বান জানান জেএসডি নেতারা।

এফএইচএস/এমএমজেড/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :