ভোলার ঘটনায় ৬ দাবি কার্যকরের আহ্বান জামায়াতের

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৫৫ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০১৯

‘ভোলার সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদ’ ঘোষিত ছয় দফা দাবি দ্রুত কার্যকর করে পরিস্থিতি শান্ত করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমির মকবুল আহমাদ। তিনি বলেছেন, অন্যথায় পরিস্থিতি সরকারের আয়ত্তের বাইরে চলে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান তিনি।

মকবুল বলেন, ‘ভোলায় পুলিশের গুলিতে চারজন নিহত ও দেড় শতাধিক লোক আহত হওয়ার ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় সারাদেশে জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে প্রতিবাদ জানাচ্ছে। ভোলার ঘটনায় দেশের সর্বস্তরের জনগণ বিক্ষুব্ধ ও মর্মাহত। সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের ঘোষিত ছয় দফা দাবির সঙ্গে আমরা একাত্মতা ঘোষণা করছি। ভোলার বোরহানউদ্দিনে জনগণের ওপর কেন গুলি চালানোর হুকুম দেয়া হলো এবং কেনইবা গুলি চালানো হয়? এর বিচার বিভাগীয় তদন্ত করে সঠিক রহস্য উদঘাটন হওয়া উচিত।’

তিনি বলেন, ‘দেশবাসী উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করেছে যে, বোরহানউদ্দিনের নৃশংস ঘটনার পর মহান আল্লাহ ও মহানবী হযরত মুহাম্মদকে (সা.) কটূক্তিকারী যুবকের পক্ষে সাফাইগান সরকারের দায়িত্বশীল ব্যক্তিরা। ওই ঘটনার প্রতিবাদকারীদের ভর্ৎসনা করে উসকানিমূলক বক্তব্য দেয়ায় এবং সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করে আদেশ জারি করায় দেশের জনগণের মধ্যে ক্ষোভ আরও বেড়েছে। বিপুল চন্দ্র বৈদ্য শুভকে ও জনগণের ওপর গুলিবর্ষণকারীদের রক্ষার চেষ্টা করা হলে তা সরকারের জন্যই বুমেরাং হবে।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘সরকার একদিকে সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের ছয় দফা দাবি মেনে নেয়ার কথা বলছে, অন্যদিকে ৫ হাজার নিরীহ লোককে আসামি করে মিথ্যা মামলা করেছে। এ থেকে সরকারের দ্বৈত ভূমিকাই লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এ থেকে বোঝা যাচ্ছে যে, জনগণের ছয় দফা দাবি মেনে নেয়ার ব্যাপারে সরকার আন্তরিক নয়। জনতার আন্দোলন বানচালের জন্য সরকার কূটকৌশলের আশ্রয় নিয়েছে।’

জামায়াত প্রধান বলেন, ‘পরিস্থিতি ঘোলা না করে অবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারসহ ছয় দফা দাবি মেনে নিয়ে দ্রুত তা কার্যকর করার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি এবং আগামী শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) বাদ জুমা নিহত ব্যক্তিদের শাহাদাত কবুল ও আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করে মসজিদে মসজিদে মহান আল্লাহর দরবারে দোয়া করার আহ্বান জানাচ্ছি।’

ছয় দফা দাবি হলো

১. জেলা ও থানা থেকে এসপি এবং ওসিদের প্রত্যাহার করতে হবে

২. ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফন করার অনুমতি দিতে হবে

৩. আহত লোকজনের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে

৪. নিহত ব্যক্তিদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য দিতে হবে

৫. অভিযুক্ত বিপ্লব চন্দ্র শুভর সঙ্গে যারা জড়িত, তাদের ফাঁসি দিতে হবে এবং

৬. গ্রেফতার ব্যক্তিদের মুক্তি দিতে হবে

কেএইচ/জেডএ/জেআইএম