জনগণের ভোটাধিকার ও সম্পদের সুষম বণ্টন করতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২৯ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০২১

জনগণের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা ও সম্পদের সুষম বণ্টনে তরুণ শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আইন বিভাগের অধ্যাপক আসিফ নজরুল।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) পুরোনো পল্টনে প্রিতম জামান টাউয়ারে এক বক্তৃতা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের উদ্যোগে ‘তারুণ্যের বাংলাদেশ ভাবনা-২০২১’ শীর্ষক উন্মুক্ত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

আসিফ নজরুল বলেন, ‘যোগ্যতা দিয়ে ছাত্র অধিকার পরিষদ নেতা ও সাবেক ডাকসু ভিপি নুর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হতে পারবে, এমন ব্যবস্থা থাকতে হবে। এখানে কে কার ছেলে সেটা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী হবে; এটা কি রাজতন্ত্র নাকি?’

তিনি আরও বলেন, ‘কেউ বুকে হাত দিয়ে বলতে পারবেন— হাজার যোগ্যতা থাকার পরও নেত্রীদের সন্তানের বাইরে কেউ প্রধানমন্ত্রী হতে পারবে। কেনো পারে না, কেনো এই সিস্টেম? এটা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নয়। মালয়েশিয়া কানাডায় বাড়ি থাকবে, এটাও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নয়। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা উপলব্ধি করে এটাকে ধারণ করার চেষ্টা করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আমাদের শক্তিশালী হতে হবে।’

jagonews24

অধ্যাপক আসিফ নজরুল বলেন, ‘যারা বাংলাদেশ ব্যাংক লুট করে, শেয়ার মার্কেট লুট করে, অর্থ পাচার করে, মানুষকে আরও বৈষম্যের দিকে ঠেলে দেয় তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সবচেয়ে বড় শত্রু। জাতীয়তাবাদ আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনার মূল শক্তি। যারা বাংলাদেশকে অন্য দেশের কাছে বিকিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সবচেয়ে বড় শত্রু।’

অনুষ্ঠানে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, বর্তমানে দেশে আইনের শাসন নেই, গণতন্ত্র নেই। নির্বাচন ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলো ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে। দলীয়করণের মাধ্যমে বর্তমান সরকার দেশকে একটা একদলীয় শাসন ব্যবস্থার দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এটা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা না। মুক্তিযুদ্ধের উত্তরসূরী হিসেবে আমরা এটা হতে দিতে পারি না।’
অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাবি অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক মহাসচিব নইম জাহাঙ্গীর প্রমুখ।

এসএম/এএএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]