মুসলমানদের আস্থা অর্জনে বিজেপি অফিসে কুরআন শরিফ!

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩৩ এএম, ৩১ মে ২০১৯

সম্প্রতি ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার গঠনে লোকসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো। লোকসভা নির্বাচনে দ্বিতীয় মেয়াদে সাফল্য লাভ করেছেন কট্টর হিন্দুত্ববাদী সংগঠন ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। এবার বিজেপির উত্তরাখণ্ডের এক অফিস লাইব্রেরিতে রাখা হয়েছে মুসলিমদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কুরআনুল কারিম।

কেন্দ্রীয় সরকার নির্বাচনে দ্বিতীয় বার সাফল্য লাভ করার পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, ‘দেশের সংখ্যালঘু মুসলমানদের আস্থা অর্জন করতে হবে’। তার এ ঘোষনার পরদিনই দেশটির বিভিন্ন স্থানে মুসলমানদের ওপর আক্রমণের একাধিক খবর গণমাধ্যমসহ স্যোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়।

আরও পড়ুন > বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদে ‘ফ্যাশন শো’ বাতিল!

মুসলিম নির্যাতনের ঘটনা ভাইরাল হওয়ার মাঝে কিছু বিষয়ে আশার আলো দেখা দিয়েছে। উত্তরাখণ্ডে মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা, সংখ্যালঘু মুসলমানদের আস্থা অর্জনে মোদির আশা প্রকাশ এবং বিজেপি অফিসে পবিত্র কুরআন রাখা এরই পূর্বাভাস।

দেরাদুনে বিজেপির প্রধান কার্যালয়ে আগে থেকেই সংরক্ষিত ছিল গীতা, বাইবেল। এবার সেখানে সংযুক্ত হলো মুসলমানদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কুরআন শরিফ।

আরও পড়ুন > বিশ্বনবিকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যে ১০ বছরের জেল

উত্তরাখণ্ড বিজেপির সহকারি মিডিয়া ইনচার্জ সাদাব শামস বলেন, ‘আমি লাইব্রেরির জন্য দুই কপি কুরআন শরিফ কিনে এনেছি। এর মধ্যে এক কপি হিন্দি ও অপর কপি ইংরেজি। দু’টি কপিই লাইব্রেরিতে রাখা হয়েছে।

মিডিয়া ইনচার্জ সাদাব শামস আরো বলেন, ‘বিজেপি লাইব্রেরিতে আগত সব পাঠককে পবিত্র কুরআন শরিফ পড়ার আহ্বান করেছি। পবিত্র কুরআন শরিফ পাঠ করলে ইসলাম সম্পর্কে তাদের ভুল ধারণা ধূর হবে।

এদিকে বিজেপির উত্তরাখণ্ড রাজ্য সভাপতি অজয় ভাট লাইব্রেরিতে কুরআন শরিফ রাখায় তিনি প্রশংসা করেছেন। গতবছর তিনি বিজেপি অফিসে এ লাইব্রেরিটি উদ্বোধন করেছিলেন।

এমএমএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :